page contents
সমকালীন বিশ্ব, শিল্প-সংস্কৃতি ও লাইফস্টাইল
লাইফস্টাইল

অতি গরমের কারণে বাস-অযোগ্য হয়ে পড়বে মধ্যপ্রাচ্য!

জলবায়ু সংক্রান্ত এক গবেষণার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, এই শতাব্দীর শেষ নাগাদ পারস্য উপসাগর এলাকার তাপমাত্রা এমন ভীষণ গরম হয়ে উঠবে যে, কোনো মানুষের পক্ষে ঘরের বাইরে অবস্থান করা সম্ভব হবে না। গরম তো পড়বেই, একই সঙ্গে বাতাসের আর্দ্রতাও থাকবে অনেক বেশি।

পারস্য উপসারগরীয় এলাকায় যেসব দেশ আছে, সেগুলি হলো সৌদি আরব, ইরাক, আরব আমিরাত, বাহরাইন, কাতার, কুয়েত, ওমান এবং ইরান।

নেচার ক্লাইমেট চেন্জ নামে একটি বিজ্ঞান জার্নালে এই গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ হয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, এইসব দেশে ২১০০ সাল নাগাদ গ্রীষ্মকালে তাপমাত্রা ঘন ঘনই ১৬৫ থেকে ১৭০ ডিগ্রি ফারেনহাইটে ওঠানামা করবে। সেই সঙ্গে অধিক মাত্রায় আর্দ্রতার কারণে ভ্যাপসা গরম পড়বে, ঘাম শুকাবে না, ফলে শরীরের প্রাকৃতিক শীতলকরণ ব্যবস্থা কাজ করবে না।

এর অর্থ, শীতাতপ নিয়ন্ত্রিত কক্ষের বাইরে মানুষজন বের হতে পারবে না।

১৭০ ডিগ্রি ফারেনহাইট মানে সেলসিয়াসের মাপকাঠিতে সেটা দাঁড়ায় সাড়ে ৭৬ ডিগ্রি। এ বছর ইরানের একটি শহরে এর কাছাকাছি তাপমাত্রা পৌঁছেছিল।

প্রত্যুষে কুয়াশায় ঢাকা দুবাই স্কাইলাইন, ৫ অক্টোবর ২০১৫।

এর আগের কিছু গবেষণায় বলা হয়েছিল, এ ধরনের চরম আবহওয়া দেখা দেবে আগামি ২শ বছরে। তবে এবার সময়ের দূরত্ব কমিয়ে এনেছে নতুন গবেষণা। এই গবেষণায় মধ্যপ্রাচ্য জুড়ে সংঘাত বেড়ে যাওয়ার পেছনে ক্রমাগত উষ্ণ হয়ে ওঠা জলবায়ুর যোগ থাকতে পারে বলে আভাস দেওয়া হয়েছে।

২০১১ সালের আরব বসন্ত নামক রাজনৈতিক ঘটনার পর পরই সিরিয়ায় টানা তিন বছর ধরে ‘প্রাকৃতিক’ খরা চলছে।

About Author

সাম্প্রতিক ডেস্ক
সাম্প্রতিক ডেস্ক