page contents
সমকালীন বিশ্ব, শিল্প-সংস্কৃতি ও লাইফস্টাইল
ব্লগ

আনারসের উপকারীতা

গ্রীষ্মমণ্ডলীয় দেশগুলির একটি সুস্বাদু ফল আনারস। কিন্তু আনারস শুধুমাত্র সাধারণ একটি সুস্বাদু ফল নয়। আনারসের স্বাস্থ্যগত উপকারীতা এত বেশি যে আপনি নিয়মিত আনারস খেলে আপনার জীবনে অবশ্যই এর ইতিবাচক প্রভাব পড়বে।

আনারসের পুষ্টিগত গুণাগুণ নিয়ে খুব বেশি গবেষণা হয় নি, কিন্তু বেশিরভাগ গবেষণাতেই দেখা গেছে আনারস কতটা উপকারী।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়
আনারসে যে ভিটামিন সি রয়েছে তা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং পানিতে দ্রবণীয়। এই ভিটামিন সি দেহের কোষ নষ্ট হওয়া থেকে রক্ষা করে, অর্থাৎ রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়।

হাড় মজবুত করে
আনারসে ম্যাঙ্গানিজ আছে। এই খনিজ উপাদান হাড় শক্ত করে এবং সংযোগ টিস্যুগুলিকে নিয়ন্ত্রণ করে। অস্টেওরোসিসের ক্ষেত্রে ও নারীদের ঋতু পরবর্তী সময়ে ম্যাঙ্গানিজ বিশেষভাবে উপকারী।

pinapple kj

চোখের জন্য
আনারস খেলে চোখের ম্যাকুলার নষ্ট হওয়ার ঝুঁকি কমে যায়। মানুষের বয়স বাড়ার সাথে সাথে সাধারণত চোখের ম্যাকুলার নষ্ট হওয়ার ঝুঁকি বাড়তে থাকে। আনারসের অ্যান্টি অক্সিডেন্ট ও ভিটামিন সি ম্যাকুলার নষ্ট হওয়ার ঝুঁকি কমায়।

প্রদাহ রোধ করে
বেশি ইনফ্ল্যামেশন বা প্রদাহের কারণে ক্যানসার, হার্টের অসুখ, ডায়াবেটিস সহ অন্যান্য রোগ হতে পারে। আনারস ইনফ্ল্যামেশন রোধ করে। আনারসে থাকা ব্রোমেলেইন মারাত্মক ধরনের প্রদাহ বা ইনফ্ল্যামেশন কমায়। ব্রোমেলেইন নামক এই এনজাইমটি টিউমারের বৃদ্ধিও রোধ করে। হাড়ের রোগ, বাত বা অস্টেওআরথ্রাইটিসেও এই এনজাইমটি খুব কার্যকরী।

রক্ত জমাট বাঁধা রোধ করে
আনারসের ব্রোমেলেইন এনজাইম বেশি পরিমাণে রক্ত জমাট বাঁধা রোধ করে। আপনার যদি রক্ত জমাট বাঁধার ঝুঁকি থাকে তাহলে আনারস খেলে এই ঝুঁকি থেকে মুক্তি পাবেন।

সাধারণ সর্দি বা ঠাণ্ডা প্রতিরোধ করে
আনারসে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি থাকার কারণে সর্দি বা ঠাণ্ডায় খুবই কার্যকরী আনারস। আপনি যদি সর্দি বা ঠাণ্ডাতে আক্রান্ত হয়ে থাকেন তাহলে আপনার প্রেসক্রিপশনের ওষুধের পাশাপাশি আনারস আপনাকে দ্রুত সুস্থ করে তুলবে।

আনারস বাইরে থেকে দেখতে কাঁটাযুক্ত, কিন্তু ভিতরে মিষ্টি। কিন্তু আনারসের এই অদ্ভুত রূপ ও স্বাদের জন্যই আনারস গুরুত্বপূর্ণ নয়। আনারসের স্বাস্থ্যগত উপকারিতার জন্য আনারস গুরুত্বপূর্ণ।

About Author

সাম্প্রতিক ডেস্ক
সাম্প্রতিক ডেস্ক