page contents
সমকালীন বিশ্ব, শিল্প-সংস্কৃতি ও লাইফস্টাইল
লাইফস্টাইল

আবারও আমেরিকার বিমানবন্দরে আটক হলেন শাহ রুখ

গত কয়েক বছরের মধ্যে তৃতীয়বারের মত আমেরিকার বিমানবন্দরে নিরাপত্তা বাঁধার মুখে পড়লেন বলিউড সুপারস্টার শাহ রুখ খান। ইয়েল বিশ্ববিদ্যালয়ে একটি অনুষ্ঠান শেষে ভারত ফেরার পথে গত বৃহস্পতিবার লস অ্যান্জেলেস বিমানবন্দরে তাকে প্রায় দুই ঘণ্টা আটকে রাখা হয়।

২০০৯ ও ২০১২ এর পর এ বছর আবারও একই ঘটনার শিকার হলেন ৫০ বছর বয়সী এ তারকা।

কেন শাহ রুখকে বার বার এই পরিস্থিতিতে পড়তে হচ্ছে এ নিয়ে প্রশ্ন তার ভক্তদের মধ্যে।

বার বার হেনস্তার শিকার হয়ে শাহ রুখ খান তার বিরক্তি লুকিয়ে রাখতে পারেন নি। টুইটারে তিনি বলেন “সারা বিশ্বের নিরাপত্তা নিয়ে অতিরিক্ত সতর্কতার কারণটা পরিষ্কার। তবে প্রতিবারই আমেরিকার বিমানবন্দরে কোনো কারণ ছাড়াই আটকে থাকাটা সত্যি বিরক্তিকর।”

ভারতে অত্যন্ত জনপ্রিয় এই শিল্পীর এ টুইটের পর টুইটারসহ বিভিন্ন সামাজিক মাধ্যমে আমেরিকান ইমিগ্রেশন কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে সমালোচনার ঝড় ওঠে।

তিনি মজা করে বলেন, যখনই আমার ভেতরে অহঙ্কার জন্মায় আমি আমেরিকা ভ্রমণে যাই। আর সেখানকার ইমিগ্রেশন অফিসাররা আমার ভেতর থেকে সেই বোধ ঝেঁটিয়ে বের করে দেন! আটক থাকার পুরোটা সময় তিনি অনলাইন গেম ‘পোকেমন গো’ খেলে কাটিয়েছেন বলে জানান।

তবে এর পরই সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এ ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেন। আমেরিকার মধ্য ও দক্ষিণ এশিয়া বিষয়ক সহকারী পররাষ্ট্র সচিব নিশা বিসওয়াল টুইটারে শাহ রুখকে উল্লেখ করে বলেন, “বিমানবন্দরে ঝামেলার জন্য আমরা দুঃখিত। অতিরিক্ত সতর্কতার জন্য আমেরিকার কূটনৈতিকদেরও কখনো কখনো আটকে থাকতে হয়।”

ভারতে নিযুক্ত আমেরিকার রাষ্ট্রদূত রিচ ভার্মা এ ব্যাপারে দুঃখ প্রকাশ করে টুইটারে বলেন তারা নিশ্চিত করবেন এমনটা যেন আর না হয়।

পড়ুন: শাহ রুখ খান প্রসঙ্গে আরো লেখা – সাম্প্রতিক ডটকমে

তবে এক্ষেত্রে শাহ রুখ খান একা নন, তিনি ছাড়াও এর আগে ভারতের নামি ব্যক্তিদের সাথে বেশ কয়েকবার এমন ঘটনা ঘটে। ২০১১ এর নভেম্বরে প্রয়াত প্রেসিডেণ্ট এপিজে আবদুল কালামকেও এভাবে তল্লাশির শিকার হতে হয়। শুধু তা-ই নয়, তার জুতা ও জ্যাকেটও সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়। সেবারও ওয়াশিংটন এর জন্য ক্ষমা চেয়েছিল।

এর এক বছর আগে মিসিসিপিতে কূটনৈতিক পরিচয় জানার পরও ভারতীয় রাষ্ট্রদূত মীরা শঙ্করকে আলাদা করে ডেকে নিয়ে তল্লাশি করা হয়। তিনি শাড়ি পরে ছিলেন বলেই তার সাথে এমনটা করা হয়েছিল বলে তখনকার কিছু রিপোর্টে অভিযোগ করা হয়।

ওই মাসেই আরেক ভারতীয় কূটনৈতিক হার্দিপ পুরি শিখ সম্প্রদায়ের ঐতিহ্যবাহী পাগড়ি খুলতে রাজি না হলে তাকে ‘হোল্ডিং রুম’ এ নিয়ে আটকে রাখা হয়।

About Author

সাম্প্রতিক ডেস্ক
সাম্প্রতিক ডেস্ক