২৭ আগস্ট, ২০১৮ তারিখে প্যারিস কর্তৃপক্ষের কাছে এ অভিযোগ দাখিল করা হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ২২ বছর বয়সী একজন অভিনেত্রী অভিযোগটি করেন। এর প্রেক্ষিতে প্রাথমিক তদন্তের নির্দেশ দিয়েছে প্যারিসের সরকারি আইনজীবীদের অফিস। তার ব্যক্তিগত আইনজীবীর মারফতে অবশ্য ইতোমধ্যেই সব ধরনের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন দেপারদিউ।

দেপারদিউ আন্তর্জাতিকভাবে ফ্রান্সের সবচাইতে প্রশংসিত ও পরিচিত অভিনেতাদের মাঝে একজন। তিনি কান ফিল্ম ফেস্টিভালের সেরা অভিনেতার পুরস্কার পাবার পাশাপাশি অস্কারের জন্যও মনোনীত হয়েছেন। ইউরোপ ও আমেরিকা ছাড়াও ইন্টারন্যাশনাল কো-প্রোডাকশনের প্রায় ১৮০ টি সিনেমায় কাজ করেছেন তিনি।

২০০৭ সালে পার্টনার Clementine Igou-এর সঙ্গে দেপারদিউ।

৬৯ বয়সী এই অভিনেতা এর আগেও তার আচরণের জন্য নানারকম বিড়ম্বনার কেন্দ্রে ছিলেন। প্যারিসে মাতাল অবস্থায় স্কুটার থেকে পড়ে যাওয়া, প্যারিস থেকে ডাবলিনের একটি বিমানে বাথরুম খালি হতে দেরি হওয়ায় বোতলে মূত্রত্যাগ করা, ইতালিতে তার ফ্ল্যাটের নিচে হৈ-হুল্লোড় করতে থাকা লোকদের উপর পানি ঢেলে দেওয়া ইত্যাদি বিভিন্ন ঘটনায় গত কয়েক বছরে তাকে নিয়ে নিউজ করা হয়।

পুতিন ও দেপারদিউ।

ফ্রান্সে ধনীদের উপর বর্ধিত ‘সুপার ট্যাক্স’ আরোপের সিদ্ধান্ত নেওয়া হলে ২০১২ সালের ডিসেম্বরে নিজ দেশের নাগরিকত্ব ত্যাগ করার ঘোষণা দেন তিনি। পরে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের নির্বাহী আদেশে রাশিয়ার সিটিজেন হিসাবে গ্রহণ করা হয় তাকে।

সূত্র. ভ্যারাইটি ও ডেইলি মেইল  

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here