page contents
লাইফস্টাইল, সংস্কৃতি ও বিশ্ব
লাইফস্টাইল

খাবারে অলিভ অয়েল থাকায় ভূমধ্যসাগরীয় মানুষ বেশি কাজ করতে পারে

ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের খাবার বিখ্যাত হওয়ার বড় কারণ খাবারে প্রচুর অলিভ অয়েলের ব্যবহার। সাম্প্রতিক গবেষণায় দেখা গেছে যারা নিয়মিত অলিভ অয়েল এবং বাদাম খায় তাদের স্মৃতিভ্রম হয় না এবং মনোযোগ ক্ষমতা বাড়ে।

আরো দেখা গেছে বেশি ফ্যাটওয়ালা এ অঞ্চলের খাবার শুধু অলিভ অয়েল থাকার কারণে কম ফ্যাটওয়ালা খাবারের তুলনায় স্বাস্থ্যের জন্য বেশি উপকারী।

ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের খাবার
ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের খাবারে প্রচুর অলিভ অয়েল থাকে। তাছাড়া এতে থাকে বিভিন্ন ধরনের বাদাম, ফল, সবজি, মাছ, সামুদ্রিক মাছ। ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের খাবার মস্পেন, ইতালি, গ্রীস ও সাইপ্রাসে ভীষণ জনপ্রিয়। এখন এই খাবার যুক্তরাজ্য ও পশ্চিম ইউরোপেও জনপ্রিয় হয়ে উঠছে।

tomato-salad

টমেটো সালাদে অলিভ অয়েল

বেশি ফ্যাট থাকার পরেও ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের খাবারগুলিকে পশ্চিমা খাবারের থেকে বেশি স্বাস্থ্যকর বিবেচনা করার আরো একটি কারণ, এতে রেড মিট বা লাল মাংস থাকে না। এবং এটি স্মৃতিশক্তি এবং কর্মক্ষমতা বাড়ায়।

গবেষণা
গবেষণাটি পরিচালনা করেছেন বার্সেলোনার ড. এমিলো রস। গবেষণাটি চালানো হয় ৪৪৭ নারী ও পুরুষের ওপর। তাদের গড় বয়স ছিল ৬৭ বছর। গবেষণার উদ্দেশ্য ছিল, যাদের স্মৃতিশক্তির সমস্যা আছে তাদের মধ্যে ভূমধ্যসাগরীয় খাবার কীভাবে কাজ করে।

অ্যাভোকাডো-দইয়ে অলিভ অয়েল

অ্যাভোকাডো-দইয়ে অলিভ অয়েল

গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের ৩টি গ্রুপে ভাগ করে দেওয়া হয় এবং নির্দিষ্ট খাবারের ধরন ৪ বছর ধরে মেনে চলার জন্যে অনুরোধ করা হয়।

গ্রুপ ১ – ১৫৫ জন অনুসরণকারীকে প্রতি সপ্তাহে অতিরিক্ত ১ লিটার অলিভ অয়েল ব্যবহার করে ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের খাবার খাওয়ার অনুরোধ করা হয়।

গ্রুপ ২ – ১৪৭ জন অংশগ্রহণকারীকে প্রতিদিন ৫০ গ্রাম বিভিন্ন ধরনের বাদাম যোগ করে ভূমধ্যসাগরীয় খাবার খেতে বলা হয়।

গ্রুপ ৩ – ১৪৫ জন অংশগ্রহণকারীকে উপরের গ্রুপের মত একই খাবার খেতে বলা হয় তবে তা কম ফ্যাটযুক্ত, যাতে হার্ট অ্যাটাক না হয়।

olive 25  c

অলিভ অয়েল ও বাদাম সমৃদ্ধ খাবার বয়স বাড়ার সাথে সাথে স্মৃতিশক্তি কমে যাওয়ার ক্ষেত্রে দারুণভাবে সহায়তা করে।

বিস্ময়কর ফলাফল
এরপর বিস্ময়করভাবে দেখা যায়, যখন স্মৃতি ধরে রাখার ক্ষমতা পরীক্ষা করা হয় তখন গ্রুপ ৩ এর অংশগ্রহণকারীরা ব্রেইন ফাংশনে কম স্কোর করে। কিন্তু গ্রুপ ১ আর গ্রুপ ২ এর অংশগ্রহণকারীরা স্মৃতি ধরে রাখার ক্ষেত্রে বেশি স্কোর করে। ড. রস বলেন, প্রচুর অলিভ অয়েল ও বাদাম সমৃদ্ধ খাবার বয়স বাড়ার সাথে সাথে স্মৃতিশক্তি কমে যাওয়ার ক্ষেত্রে দারুণভাবে সহায়তা করে।

কর্মস্থলে ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের খাবার যেভাবে সাহায্য করে
বেশি অলিভ অয়েল ও বাদাম সমৃদ্ধ খাবারের সম্পূর্ণ উপকারীতা সম্পর্কে নিশ্চিত হতে যদিও আরো গবেষণ দরকার, তবে এটা স্পষ্ট যে এই খাবারের উপকারিতা অনেক।

রান্নায় অলিভ অয়েল

রান্নায় অলিভ অয়েল

যেসব কাজের জায়গায় কর্মচারীদের খাবার দেওয়ার অপশন রয়েছে তারা যদি ভুমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের খাবার দেয় তাহলে অবশ্যই তার ইতিবাচক প্রভাব রয়েছে, কারণ এটি প্রমাণিত যে ভূমধ্যসাগরীয় অঞ্চলের খাবার স্মৃতিশক্তি ও কর্মক্ষমতা বাড়ায়।

সারাদিনের খাবারের মধ্যে দুপুরের খাবারটিই সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ। কারণ এটি দুপুরের পরে বিকালের দিকে ঝিমিয়ে যাওয়া রোধ করতে পারে এবং কাজের উদ্দীপনা বাড়ায়। ফলে, দুপুরের খাবারে বিভিন্ন ধরনের বাদাম, মাছ ও অলিভ অয়েল থাকাটা আসলেই কর্মস্থলে আপনাকে সহায়তা করবে।

একই কারণে আপনার উচ্চ ফ্যাটযুক্ত খাবার যেমন সাদা পাউরুটি বা পাস্তার মত খারাপ কার্বোহাইড্রেট ও ম্যাকডোনাল্ড বা এই এই জাতীয় ফাস্ট ফুড এড়িয়ে চলা উচিৎ, সাথে সাথে স্বাস্থ্যকর ফ্যাট খাবার বাড়ানো উচিৎ।

About Author

সাম্প্রতিক ডেস্ক
সাম্প্রতিক ডেস্ক