প্রশ্ন তৈরি হয়েছে, ভবিষ্যতে এই বিশ্ব মেসির মাপের কোনো ফুটবল খেলোয়াড়কে আদৌ দেখবে কিনা।

পৃথিবী হয়ত ভবিষ্যতে মেসি’র জেনেটিক ডাবলকে দেখতে পাবে, এরকম দাবিই করছেন জিন বিজ্ঞানীরা। তারা বলছেন বর্তমান প্রযুক্তি ব্যবহার করে মেসির ক্লোন করা সম্ভব হবে। এখনকার সায়েন্টিফিক প্র্যাক্টিস অনুসরণ করেই ভবিষ্যতে তারা মেসির ক্লোন করতে পারবেন বলে মনে করছেন জেনেটিক বিজ্ঞানীরা।

লিওনেল মেসি শুরু থেকে এ পর্যন্ত বার্সেলোনা দলে খেলছেন। এখন পর্যন্ত আর্জেন্টিনা জাতীয় দল ও বার্সেলোনার হয়ে সর্বমোট ৬৭৪ ম্যাচে করেছেন ৫৯১ গোল।
মেসির বয়স এখন ৩১ বছর। স্বাভাবিকভাবেই আগামী কয়েক বছর পরে মেসির ফুটবল ক্যারিয়ারের সমাপ্তি ঘটবে। এ কারণেই ইতোমধ্যে প্রশ্ন তৈরি হয়েছে, ভবিষ্যতে এই বিশ্ব মেসির মাপের কোনো ফুটবল খেলোয়াড়কে আদৌ দেখবে কিনা।

আর এই প্রশ্নের উত্তর দিচ্ছেন জেনেটিক বিজ্ঞানীরা। তারা বলছেন তারা চাইলেই ভবিষ্যতে মেসির আরেকটা সংস্করণ তৈরি করতে পারবেন ক্লোন করার মাধ্যমে।

জেনেটিক স্পেশালিস্ট এবং ইউরোপিয়ান জিনোম-ফেনোম আর্কাইভের প্রধান আর্কাদি নাভারো বলেছেন, হ্যাঁ, বর্তমান টেকনিক ব্যবহার করেই মেসির ক্লোন করা যেতে পারে। সেটা দেখতে মেসির মতই হবে। সেটাকে দেখে তার যমজ মনে হবে। এটা অনেকটা এরকম হবে যে দুইজন যমজ জন্মেছিল আর আমরা তাদের একজনকে ২০ বা ৩০ বছর ধরে ঠাণ্ডায় জমিয়ে রেখে দিয়েছিলাম।

আর্কাদি নাভারো’র কথায়, সেই ক্লোন সংস্করণের প্রতিভা একেবারে মেসির মতই হবে, তবে জেনেটিক বৈশিষ্ট্য শুধু একটা দিক। এটা ছাড়াও শিক্ষা, পরিবেশগত প্রভাবের বিষয়গুলিও আছে। মেসি শুধু তার জিনগুলির কারণেই মেসি না, তার জীবন যেসব কিছুর মধ্য দিয়ে গেছে, তার শিক্ষা, লা মাসিয়া-তে তার সময়টা, যেসব জিনিস সে পেয়েছে সেগুলির কারণেই সে মেসি। জেনেটিকস শুধু আমাদেরকে সম্ভাবনাটা দেয়, সেটাকে সম্পূর্ণ করা আমাদের উপর নির্ভর করে।

এই মৌসুমে এখন পর্যন্ত মেসি ৩৯টি গোল করেছেন এবং দশম বারের মত লা লিগা শিরোপা জিততে যাচ্ছেন। মেসির কারণেই তার দল বার্সেলোনা লা লিগা পয়েন্ট টেবিলে দ্বিতীয় স্থানে থাকা অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের চেয়ে ১০ পয়েন্টে এগিয়ে আছে।

এইবার মেসি বার্সেলোনাকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপাও জেতাতে পারেন এমন সম্ভাবনাও আছে। কোয়ার্টার ফাইনালে আগামি এপ্রিলে বার্সেলোনা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মুখোমুখি হবে। বার্সেলোনা চ্যাম্পিয়ন্স লিগেও ফেভারিট অবস্থানে আছে।

এর মধ্যে মেসি আর্জেন্টিনা জাতীয় দলেও ফিরেছেন। ২৩ মার্চ ভেনেজুয়েলার বিরুদ্ধে ম্যাচে মেসি আর্জেন্টিনার হয়ে মাঠে নামবেন। এর পরে ২৭ তারিখে নামবেন মরক্কোর বিরুদ্ধে ম্যাচে। ২০১৮ এর রাশিয়া বিশ্বকাপের দ্বিতীয় রাউন্ডে ফ্রান্সের কাছে পরাজিত হয়ে বিদায়ের পরে মেসি দীর্ঘদিন আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের বাইরে ছিলেন।

আগামিতে শুরু হওয়া কোপা আমেরিকা কাপেও মেসি আর্জেন্টিনা দলের হয়ে খেলবেন। তারই প্রস্তুতি হিসাবে এখন তিনি আর্জেন্টিনা জাতীয় দলের হয়ে ভেনেজুয়েলা ও মরক্কোর বিরুদ্ধে ম্যাচগুলিতে খেলতে নামছেন।