স্টেম সেল বা স্টেম কোষের ওপর নতুন একটি থেরাপি প্রয়োগ করে টাইপ 1 ডায়াবেটিস নিরাময়ের সম্ভাবনা দেখা গেছে। রোগীদের ওপর এর পরীক্ষামূলক প্রয়োগ শুরু হয়েছে।

এটি প্রাথমিকভাবে অন্য প্রাণিদের ওপর কাজ করেছে। এখন যদি মানুষের ওপর কাজ করে তাহলে রোগীদের আর ইনসুলিনের দরকার হবে না। ব্লাড সুগার পরীক্ষাও আর করতে হবে না।

থেরাপিটিতে ভ্রূণাবস্থার স্টেম সেল বা স্টেম কোষকে ইনসুলিন উৎপাদক কোষে বদলে দেওয়া  হয়। থেরাপি অনুসারে ছোট একটা ক্যাপসুল রোগীর চামড়ার নিচে বসিয়ে দেওয়া হয়, যে ক্যাপসুলের ভিতরে থাকে ইনসুলিন। ক্যাপসুলটির কারণে দেহের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা বা ইম্যুনিটি সিস্টেম স্টেম কোষগুলিকে আক্রমণ করতে সক্ষম হয় না।

যাদের টাইপ-ওয়ান ডায়াবেটিস আছে, তাদের শরীরের রোগ প্রতিরোধ ব্যবস্থা অগ্ন্যাশয়ের ইনসুলিন উৎপাদনকারী কোষকে ধ্বংস করে ফেলে।

এর আগে ডায়াবেটিসের স্থায়ী চিকিৎসার জন্য অনেক উদ্যোগ নেওয়া হলেও এটাই হতে যাচ্ছে প্রথমবারের মত রোগীদের ওপর সরাসরি পরীক্ষা। থেরাপির জন্য ভায়াসাইট বায়োটেকনোলজি কোম্পানির সাথে একত্রিত হয়েছে জনসন অ্যান্ড জনসন কোম্পানি।

tim-d
ড. টম ডনার।

চিকিৎসা পদ্ধতিটি যদি মানুষের ওপর সফল হয় তাহলে কয়েক বছরের মধ্যে টাইপ-ওয়ান ডায়াবেটিসের এই যুগান্তকারী থেরাপি মানুষের হাতের নাগালে চলে আসবে। এবং শেষপর্যন্ত ইনসুলিন ব্যবহারকারী টাইপ-টু ডায়াবেটিস রোগীদের কাজেও আসবে এটি।

জন হপকিন্স স্কুল অব মেডিসিনের দ্য ডায়াবেটিস সেন্টারের ড. টম ডনার বলেন, এটা আসলেই বিশাল ঘটনা, অনেকটা নতুন একটা অগ্ন্যাশয় তৈরির মত ব্যাপার। যেটা ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণের জন্য সব প্রয়োজনীয় হরমোন তৈরি করবে।

ড. টম ডনার গবেষণায় জড়িত আছেন। তার মতে, থেরাপিটি যদি ইনসুলিনের মাত্রাকে স্বাভাবিক অবস্থায় নিয়ে যেতে পারে তাহলে ডায়াবেটিস পরবর্তী জটিলতা থেকে মুক্তি পাবে লক্ষ লক্ষ মানুষ।

সূত্র. ওয়েব এমডি

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here