page contents
সমকালীন বিশ্ব, শিল্প-সংস্কৃতি ও লাইফস্টাইল
লাইফস্টাইল

টু ওয়ে মিরর এবং গোপন ক্যামেরা শনাক্ত করবেন যেভাবে

বেশিরভাগ মানুষই জানে না অনেক জায়গায়ই গোপন ক্যামেরার সাথে সাথে টু ওয়ে মিরর বা অপর পাশ থেকে স্বচ্ছ আয়না ব্যবহার করা হয়।

হোটেল, বার, রেস্টুরেন্ট ইত্যাদি অনেক জায়গায় এই সারভিলেন্স সিস্টেম ব্যবহারের প্রচলন আছে।

সারা বিশ্ব জুড়ে এ ধরনের গোপন সারভিলেন্স সিস্টেম চলছে। অনেক জায়গায় নিরাপত্তার উদ্দেশ্যে এবং অনেক জায়গায় খারাপ কোনো উদ্দেশ্যে এই ক্যামেরা ও টু ওয়ে মিররের সারভিলেন্স সিস্টেম ব্যবহার করা হচ্ছে।

যেমন বিভিন্ন প্রাইভেট হোটেলের বাথরুম, হোটেল রুম ও ড্রেসিং রুমে হিডেন ক্যামেরা ও টু ওয়ে মিররের ব্যবহার নেতিবাচক উদ্দেশ্যেই করা হয়।

আইনগতভাবে যেসব জায়গায় সারভিলেন্স সিস্টেম রাখার বাধ্যবাধকতা নেই সেইসব জায়গায় বা কোনো প্রাইভেট প্লেসে সারভিলেন্স সিস্টেম ব্যবহার করা হচ্ছে কিনা তা বুঝতে পারা যাবে নিচের উপায়গুলির মাধ্যমে।

এক সাইডে আয়না কিন্তু অপর সাইড স্বচ্ছ এমন গ্লাস বা টু ওয়ে মিরর চেক করবেন কীভাবে?

১. আয়না বা গ্লাস পরীক্ষা করুন
আপনি যখন কোনো প্রাইভেট প্লেসে যাবেন, যদি সেখানে কোনো আয়না থাকে তাহলে অবশ্যই সেটা পরীক্ষা করবেন।

চেক করবেন আয়নাটি কীভাবে বসানো আছে। আয়নাটি কি দেয়ালে ঝোলানো, নাকি দেয়ালে  লাগানো?

নাকি দেয়ালের সাথে একেবারে খোদাই করা অবস্থায় আছে?

two-way-mirror-1

২০১২ সালের ছবি ‘দ্য কেবিন ইন দ্য উড’-এ টু ওয়ে মিরর।

টু ওয়ে মিরর বা একপাশে আয়না ও অন্য পাশে স্বচ্ছ এমন গ্লাসগুলি সাধারণত দেয়ালে একেবারে খোদাই করা অবস্থায় থাকে।

২. আয়নাতে নক করুন বা টোকা দিন
আপনার আঙুলের গিঁট দিয়ে আয়নাতে টোকা দিন বা নক করুন। আয়না যেহেতু দেয়ালে খোদাই করা বা বসানো আছে, সুতরাং নরমাল আয়না হলে তা সাধারণ ফ্ল্যাট আওয়াজ করবে।

কিন্তু টু ওয়ে মিরর হলে আয়নায় আঘাত করলে ফাঁপা শব্দ করবে, কারণ আয়নার অন্য পাশে দেয়াল নেই, অন্য পাশ ফাঁকা।

৩. আয়নার ভিতরে খুব কাছে থেকে তাকান
এটা যদি টু ওয়ে মিরর হয় তাহলে আয়নার কাছে চোখ নিয়ে তাকালে আয়নার অন্য সাইড দেখা যাবে। আপনার মুখ আয়নাতে চেপে ধরুন, এবং হাত দিয়ে মুখের সাইডে এমনভাবে ব্লক করুন যাতে কোনো আলো আয়নায় না পড়ে।

এটা টু ওয়ে মিরর হলে আয়নার অপর পাশে কী আছে আপনি তা দেখতে পারবেন।

৪. লাইট ব্যবহার করুন
কোনো ফ্লাশ লাইট বা সেলফোনের লাইট বা টর্চলাইটের আলো ফেলুন আয়নার ওপর।

আয়নার খুব কাছে থেকে আলোটি ফেলুন। সম্ভব হলে ঘরের অন্য লাইট বন্ধ করে দিন, শুধু আপনার হাতের ওই আলোটি ছাড়া। এটা টু ওয়ে মিরর হলে, অন্য পাশে কী আছে যা দেখা যাবে।

৫. নখ দিয়ে পরীক্ষা করুন
টু ওয়ে মিরর পরীক্ষা করার সবচেয়ে দুর্বল পদ্ধতি হলো নখ দিয়ে পরীক্ষা করা। এর ফলাফল নিখুঁত নাও হতে পারে। তবে এই পদ্ধতিও জেনে রাখা ভাল।

সাধারণ আয়নার পৃষ্ঠতল দুইটি। অর্থাৎ, সাধারণ আয়নার আরো একটি লেয়ার থাকে। আপনি যদি সাধারণ কোনো আয়নার ওপরে আপনার আঙুলের অগ্রভাগ চেপে ধরেন তাহলে দেখবেন আপনার আঙুল ও আয়নায় আপনার আঙুলের প্রতিবিম্ব একটি আরেকটিকে স্পর্শ করে না, সামান্য ফাঁকা থাকে মাঝে।

কিন্তু যদি আঙুল ও প্রতিবিম্ব দুইটি পরস্পরকে স্পর্শ করে তাহলে এটা টু ওয়ে মিরর।

তবে আয়না কোন ম্যাটেরিয়ালে তৈরি সে বিষয়টিও প্রভাব ফেলে। তাই, আয়নায় রাখা আঙুল ও ভিতরের প্রতিবিম্ব একে অপরকে স্পর্শ করলেও সেটা টু ওয়ে মিরর নাও হতে পারে।

 

গোপন সারভিলেন্স ক্যামেরা চেক করবেন কীভাবে?

১. অ্যাপ ব্যবহার করতে পারেন
অ্যাপল ও অ্যান্ড্রয়েড সিস্টেমের মোবাইলের জন্য অনেক অ্যাপ আছে যেগুলি গোপন ক্যামেরা শনাক্ত করতে পারে। এই অ্যাপগুলির যে কোনো একটি ব্যবহার করতে পারেন।

২. আপনার সেলফোন ব্যবহার করতে পারেন
সিকিউরিটি ক্যামেরা বা গোপন ক্যামেরা থেকে এক ধরনের ফ্রিকুয়েন্সি আসে যেটা মোবাইল ফোনের নেটওয়ার্ক বন্ধ করে দেয়। যদি কোনো জায়গায় বা রুমে দেখেন আপনার মোবাইল ফোন সার্ভিস দিচ্ছে না এবং আপনার নজরে কোনো ক্যামেরাও পড়ছে না, তাহলে মনে করবেন সেখানে কাছাকাছি কোথাও গোপন ক্যামেরা আছে।

smoke-detector-cam

স্মোক ডিটেকটর ক্যামেরা।

৩. জ্বলছে নিভছে এ রকম কোনো আলো আছে কি না দেখুন
সিকিউরিটি ক্যামেরা বা গোপন সারভিলেন্স ক্যামেরায় প্রায়ই আলো থাকে। সাধারণত এগুলি সবুজ বা লাল রঙের হয় এবং সবসময় জ্বলতে নিভতে থাকে। এ রকম রহস্যময় কোনো আলো যদি দেখেন তাহলে সেটা ক্যামেরা ইন্ডিকেটর লাইট হওয়ার সম্ভাবনা আছে।

এটা খুব সহজেই শনাক্ত করা যাবে যদি অন্য সব আলো নিভিয়ে দেন। যদি দেখেন সবুজ অথবা লাল আলো জ্বলছে বা নিভছে তাহলে এটা ক্যামেরার লাইট হতে পারে।

কেউই চায় না তাদের প্রাইভেসিতে অন্য কেউ সমস্যা তৈরি করুক। কোনো প্রতিষ্ঠানে নিরাপত্তার খাতিরে বা অন্য কোনো ভাল উদ্দেশ্যে গোপন ক্যামেরা থাকতে পারে, তবে যদি কোনো প্রাইভেট প্লেসে তা থাকে তবে সেটা সিরিয়াস বিষয়।

নিজের প্রাইভেসি বিপন্ন হওয়ার আগে গোপন নজরদারি ব্যবস্থা আছে কিনা তা শনাক্ত করা অবশ্যই জরুরি।

About Author

সাম্প্রতিক ডেস্ক
সাম্প্রতিক ডেস্ক