page contents
সমকালীন বিশ্ব, শিল্প-সংস্কৃতি ও লাইফস্টাইল
লাইফস্টাইল

তুরস্কে পাচার হচ্ছে আইসিসের তেল—এরদোগানের বিরুদ্ধে অভিযোগ রাশিয়ার

রাশিয়া কিছু স্যাটেলাইটে তোলা ছবি প্রকাশ করেছে। ছবিগুলিতে দেখা যাচ্ছে আইসিস নিয়ন্ত্রিত ইরাক এবং সিরিয়ায় টার্কিশ ট্রাকে তেল ভরা হচ্ছে।

রাশিয়া প্রমাণ প্রকাশ করে দাবি করেছে যে তুরষ্কের প্রেসিডেন্ট রাসেপ তায়িপ এরদোগান এবং তার পরিবার আইসিস নিয়ন্ত্রিত অঞ্চল থেকে অবৈধভাবে তেল পাচার করার সুবিধা নিয়েছে।

মস্কোর প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় কিছু স্যাটেলাইট ইমেজ প্রকাশ করে দাবি করেছে সিরিয়ার আইসিস নিয়ন্ত্রিত একটি স্থানে কয়েক সারি ট্রাকে তেল ভর্তি করতে দেখা যাচ্ছে ছবিতে, পরে সেই ট্রাকগুলি সীমানা অতিক্রম করে তুরষ্কে প্রবেশ করে।

ক্রেমলিন থেকেও ফুটেজ প্রকাশ করা হয়েছে। দাবি করা হয়েছে সেই ফুটেজে দেখা যাচ্ছে অনেকগুলি লরি রেহানলি চেকপয়েন্টে কোনো বাধার মুখোমুখি না হয়েই তুরষ্ক-সিরিয়া সীমানা অতিক্রম করেছে।

তবে মি. এরদোগান এবং তার পরিবার সরাসরি জড়িত থাকার কোনো প্রমাণ নির্দিষ্ট করে দেয় নি রাশিয়ার কর্মকর্তারা, এবং তুরষ্কের প্রেসিডেন্ট এই অভিযোগ তীব্রভাবে অস্বীকার করেছেন।

erdogan-bilal

এরদোগান ও ছেলে বিলাল

রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী আনাতলি আনতোনভ বলেছেন, প্রকৃত মালিক সিরিয়া এবং ইরাকের কাছ থেকে চুরি করা তেলের প্রকৃত ভোক্তা হচ্ছে তুরষ্ক। আমাদের পাওয়া তথ্য অনুযায়ী দেশটির সিনিয়র রাজনৈতিক নেতৃত্ব—প্রেসিডেন্ট এরদোগান এবং তার পরিবার এই অবৈধ ব্যবসার সাথে জড়িত।

আনতোনভ স্বীকার করেছেন, তিনি এই জড়িত থাকার ব্যাপার খুব বেশি কাঠখোট্টাভাবে বলেছেন। তিনি আরও বলেন, তুরস্কের প্রেসিডেন্টের ছেলে সবচেয়ে বড় এনার্জি কোম্পানিগুলির একটির প্রধান এবং তার জামাতা দেশটির এনার্জি মিনিস্টার হয়েছেন, পশ্চিমে এই ব্যাপারে কেউ কোনো কথা বলে না। কী চমৎকার পারিবারিক ব্যবসা!

১ ডিসেম্বর, ২০১৫ তে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা বলেছেন, সিরিয়ার সাথে সীমান্ত বন্ধ করার ক্ষেত্রে তুরস্ক এগিয়ে গেছে, কিন্তু ইসলামিক স্টেট বিদেশী যোদ্ধা আনার জন্য এবং তেল বিক্রির জন্য গ্যাপগুলি ব্যবহার করছে।

রাশিয়ার প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় আরো অভিযোগ করেছে, যে অপরাধ চক্রটি তেল পাচার করছে সেই একই চক্র ইসলামিক স্টেট এবং অন্যান্য ইসলামিস্ট দলে অস্ত্র ও সরঞ্জাম সরবরাহ করছে এবং প্রশিক্ষণের ব্যাপারে সহায়তা করছে।

erdogan-5

রুশ সামরিক কর্তারা তুরস্কের সিরিয়া সীমান্তে তেল ভর্তি ট্রাকের এরিয়াল ইমেজ দেখাচ্ছেন মিডিয়া কর্মীদের।

তুরস্কের প্রেসিডেন্ট ২ ডিসেম্বর, ২০১৫ তে এই অভিযোগের জবাবে বলেছেন, ইসলামিক স্টেটের কাছে থেকে তেল কেনার অভিযোগে তুরস্ককে অপবাদ দেওয়ার অধিকার কারো নেই, আর এই অভিযোগ কেউ প্রমাণ করতে পারবেও না।

কাতারের রাজধানী দোহায় একটি বিশ্ববিদ্যালয়ে বক্তব্য দেওয়ার সময় মি. এরদোগান বলেছেন, তিনি চান না মস্কোর সাথে সম্পর্ক আরো খারাপ হোক।

গত সপ্তাহে প্রেসিডেন্ট এরদোগান বৈধ উৎস ছাড়া অন্য কোথাও থেকে তুরস্কের তেল সংগ্রহের অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। সে সময় তিনি বলেন, তেল পাচার বন্ধ করতে আংকারা পদক্ষেপ নিচ্ছে। আর যারা তার সরকারের বিরুদ্ধে ইসলামিক স্টেটের সাথে সহযোগিতার অভিযোগ তোলে তাদেরকে তা প্রমাণ করার চ্যালেন্জ জানান তিনি।

About Author

সাম্প্রতিক ডেস্ক
সাম্প্রতিক ডেস্ক