page contents
লাইফস্টাইল, সংস্কৃতি ও বিশ্ব
লাইফস্টাইল

দুনিয়ার সবচেয়ে আবেগহীন দেশ বাংলাদেশ

জরিপের ফলাফল দেখে আপনি খুব ইমোশনাল হয়ে যেতে পারেন।

সাম্প্রতিক এ গ্যালাপ জরিপ জানাচ্ছে, বাংলাদেশ দুনিয়ার সবচেয়ে আবেগহীন মানুষের দেশ।

১৪৮টি দেশের ১ হাজার মানুষের ওপর জরিপ চালিয়ে এই বেদনাদায়ক ফলাফলটি পাওয়া গেছে।

জরিপে সবচেয়ে আবেগপ্রবণ মানুষের দেশ হিসেবে চিহ্নিত হয়েছে বলিভিয়া, দ্বিতীয় এল সালভাদর। ভারত স্থান পেয়েছে ৮৮ নম্বরে। যুক্তরাষ্ট্রের স্থান ১৪ নম্বরে।

গ্যালাপ জরিপটি চালানো হয়েছে বিভিন্ন দেশের নাগরিকরা প্রতিদিন কতটা তীব্র আবেগময় মানসিক অবস্থার মুখোমুখি হয়, সেটা পরিমাপ করতে।

তারা জরিপে অংশগ্রহণকারীদের প্রশ্ন করেছে, আগের দিন তারা ইতিবাচক ও নেতিবাচক পাঁচটি আবেগের কোন কোনটি অনুভব করেছে। জরিপটি চালানো হয়েছিল ২০১৪ সালে। নেতিবাচক পাঁচ আবেগ হলো রাগ, মানসিক চাপ, বিষাদ, শারীরিক ব্যথা এবং উদ্বেগ। আর ইতিবাচক পাঁচ আবেগ হলো শ্রদ্ধা, ফুর্তি (এনজয়মেন্ট), খুশি (স্মাইলিং), হাসি (লাফিং) এবং মজার কিছু করা।

এসব প্রশ্নের জবাব থেকে ইতিবাচক আর নেতিবাচক অভিজ্ঞতার দুটি আলাদা তালিকা তৈরি করা হয়েছে। দুই তালিকার যোগফল থেকে বের করা হয়েছে লোকে কীভাবে তার যাপিত জীবনকে দেখে তা মাপার ভৌত মাপকাঠি।

১০০-এর মধ্যে নম্বর। সবচেয়ে আবেগের দেশ বলিভিয়া পেয়েছে ৫৯ নম্বর। এল সালভাদরও তাই। বাংলাদেশ সবচেয়ে কম নাম্বার ৩৭ পেয়েছে। ভারত ৪৮ নম্বর পেয়েছে।

রিপোর্টের বিশ্লেষণে বলা হয়েছে, নেতিবাচক আর ইতিবাচক অভিজ্ঞতার মধ্যে সম্পর্কটি কিন্তু বিরোধাত্মক না। একই দেশে কেউ হো-হো অট্টহাস্যে ফেটে পড়েছে, তো সেই লোকই আবার বিষাদের সাগরে তলিয়ে গেছে।

এর আগের জরিপে ফিলিপাইন সবচেয়ে আবেগপ্রবণ দেশ হিসেবে চিহ্নিত হয়েছিল। সে বার সবচেয়ে কম ৩৬ নম্বর পেয়ে সবচেয়ে আবেগহীন দেশের মুকুট পরেছিল সিঙ্গাপুর। বাংলাদেশ সেবার ৪২ মার্ক পেয়ে তালিকায় ১০০ নম্বর ঘরে ছিল।

জরিপের রিপোর্টে মন্তব্য করা হয়েছে, অর্থনৈতিক উন্নতির সঙ্গে দেশের মানুষের ইতিবাচক বা নেতিবাচক আবেগজনিত অভিজ্ঞতার কোনো সম্পর্ক খুঁজে পাওয়া যায় নি। বরং স্বাধীনতা, পরিবার ও বন্ধুপরিজনের সঙ্গে যোগাযোগ, সংস্কৃতি এবং যুদ্ধ-হাঙ্গামার পরিস্থিতি মানুষের আবেগে হেরফের ঘটায়।

ওয়েব লিংক: জরিপের পূর্ণাঙ্গ ফলাফল

About Author

সাম্প্রতিক ডেস্ক
সাম্প্রতিক ডেস্ক