ডিজনির চেয়ারম্যান ও সিইও বব আইগার মার্ভেলের সিনেমা ব্ল্যাক প্যান্থার নিয়ে সাম্প্রতিক সমালোচনার জবাব দিতে শুরু করেছেন।

বিষয়টা শুরু হয় যখন  ফিল্মমেকার মার্টিন স্করসেজি অক্টোবর মাসের শুরুর দিকে এমপায়ার ম্যাগাজিনে রায়ান কুগলারের ব্ল্যাক প্যান্থার সিনেমাকে থিম পার্কের  সঙ্গে তুলনা করেন। তিনি বলেন , মার্ভেলের সুপারহিরো সিনেমাগুলি কোনো “সিনেমাই না”।

পরেগডফাদার সিরিজের ডিরেক্টর ফ্রান্সিস ফোর্ড কপোলা স্করসেজিকে সমর্থন দিলে বিষয়টা আরো সামনে চলে আসে। ফ্রান্সে লিয়নে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপের সময় তিনি বলেন, “মার্টিন তো দয়াই করেছে, যখন বলেছে যে এটা কোনো সিনেমা না। সে এটাকে জঘন্য বলে নাই, যেটা আমি বলছি।”

এরপর ব্রিটিশ পরিচালক কেন লোচ এবং আমেরিকান অভিনেত্রী জেনিফার অ্যানিস্টোনও ভিন্ন ভিন্ন মাধ্যমে মার্ভেল নিয়ে নিজেদের ক্ষোভের কথা জানান।

২২ অক্টোবর, ২০১৯ তারিখ ক্যালিফোর্নিয়ার একটি ইভেন্টে মার্ভেলের প্যারেন্ট কোম্পানি ডিজনি’র সিইও ও চেয়ারম্যান বব আইগারের কাছে এ ব্যাপারে জানতে চাওয়া হলে তিনি মন্তব্য করেন—

“যখন ফ্রান্সিস কপোলা মার্ভেলের সিনেমাকে ‘জঘন্য’ বললেন… এই ধরনের শব্দ তো কোনো গণহত্যাকারীর কথা বলতে গিয়ে ইউজ করা যেতে পারে। আমি ঠিক বুঝি না তারা এভাবে আমাদের সমালোচনা করছেন কেন, যেখানে আমরা এমন সব সিনেমা বানাচ্ছি যেগুলি কোটি কোটি মানুষ নিঃসন্দেহে অনেক উপভোগ করছেন এবং দল বেঁধে দেখতে যাচ্ছেন । আমি রীতিমতো হতভম্ব হয়েছি।… যারা এসব সিনেমার পেছনে এত কষ্ট করে কাজ করছেন, নিজেদের সৃজনশীল সত্তাকে উজাড় করে দিচ্ছেন, তাদের জন্য খুবই অসম্মানজনক মনে হচ্ছে কথাগুলি।”

“আপনারা কি বলতে চাচ্ছেন যে রায়ান কুগলার যখন ব্ল্যাক প্যান্থার এর মতো মুভি বানান, সেটা স্করসেজি বা কপোলার নিজেদের সিনেমায় কাজ করার চাইতে কোনো দিক দিয়ে কম? কাম অন!”

সূত্র. ফ্যাস্ট কোম্পানি ডট কম

 

Recommended Posts

No comment yet, add your voice below!


Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *