page contents
সমকালীন বিশ্ব, শিল্প-সংস্কৃতি ও লাইফস্টাইল
লাইফস্টাইল

বাঙ্গালী ছেলেরা খুব স্মার্ট

উনারা বৌরে বাইকের পিছে বসাইয়া থিয়েটারে যান, ওয়েস্টিনে গিয়া কফি ও লাল লিপস্টিক লাগানো বৌ সমেত সেলফি তুইলা ফেইসবুকে আপডেইট দেন, বৌরে গ্রামীণ কি ব্র্যাক-ব্যাংকে কাজ করার অনুমতি দেন, বছরে একবার কি দুইবার উনারে জিন্স পিন্দাইয়া মালয়েশিয়া কি সিঙ্গাপোর নিয়া গিয়া ম্যাকের মেইকআপ আর ক্রিশ্চিয়ান ডিওরের ব্যাগ কিনা দিয়া নিজেরা হাফ-প্যান্ট পিন্দা সমুদ্রের পাশে হাস্যমুখী ছবি তুলেন, স্মার্ট তো উনারা নিশ্চয়ই। বৌরে তো বোরখা পিন্দাইয়া ঘরে শিকল দিয়া আটকায় রাখেন নাই উনারা, তাই না?

স্মার্ট তো অবশ্যই।

01. logo nadia png

তবে কিনা, ইয়ে, বৌয়ের বেতন উনার বেতনের চায়ে বেশি যাতে না হয়, সেই খেয়াল কিন্তু উনি ঠিকমতই করেন। বৌ এবং উনি চাকরি শেষে একই সময়ে বাসায় ঢুকলেও বৌরেই গরম ভাত টেবিলে কিন্তু দিতে হবে, সেইটাও উনার হিসাব করা আছে!

শার্ট ইস্ত্রি করতে হবে? মায়ের জ্বর? মায়ের মাথায় ঠাণ্ডা পানি ঢালতে হবে? বাচ্চা ঘুম পাড়াইতে হবে? বাচ্চার ডায়াপার চেঞ্জ করতে হবে? সেইজন্য উনাদের বৌ আছে না?

বৌ শিক্ষিত তো কী হইছে? মেয়ে মানুষ জন্ম হইছে বাচ্চা জন্ম দেওয়ার জন্য, মেয়ে মানুষ জন্মই হইছে রান্না করার জন্য। চাকরি কইরা রান্না যদি না পোষায়, তাইলে চাকরি ছাইড়া দিক উনি, নাকি?

বাঙ্গালী ছেলে খুব স্মার্ট তো, নিজের মুখে তো বৌরে পড়ালেখা-চাকরি-মিটিং-মিছিল-সভা-সমিতি ছাড়তে কন নাই, নাকি?

বাঙ্গালী ছেলে!!! খুব স্মার্ট তো, তাই উনি বৌয়ের পেটে বাচ্চা জন্ম দিবেন, ফেইসবুকে বাচ্চা ও নিজের ছবি দিবেন—কিন্তু বাচ্চা উনি কিন্তু পালতে পারবেন না। নো। কারণ, ঐতে আনস্মার্ট হইয়া যাওয়ার ভয় আছে। তাতে পুরুষত্ব কইমা যাওয়ার ভয় আছে, তাই না? ছিঃ—তাইলে উনি পুরুষ ব্যাঘ্র সমাজে মুখ দেখাবেন কেমনে? বন্ধুদের উনারে স্ত্রৈণ ডাকাই বা কেমনে থামাবেন উনি, শুনি?

তো এই তো বাঙ্গালী ছেলে তো খুব খুব স্মার্ট তো—তাই আজকে উনাদের আনস্মার্ট বৌরা স্বামীর আলোতেই না হয় আলোকিত হউক!

ভাত রাইন্ধা, বাচ্চা জন্মাইয়া নিজ দায়িত্বে ক্যারিয়ার বিসর্জন দিক, উনার স্মার্ট বাঙ্গালী স্বামী কিন্তু নিজ মুখে উনারে ক্যারিয়ার ভুলতে না করেন নাই! অথবা কারো সাহায্য না পাইয়া একলাই ভাত রাইন্ধা, বাচ্চা পাইলা, চাকরি কইরা বৌ গলদঘর্ম হউক, তাতেও স্মার্ট বাঙ্গালী স্বামীর আপত্তি নাই একদম! উনি কিন্তু কাজ শেষে খুব টায়ার্ড, উনি কিন্তু কাজ শেষে খুবই স্ট্রেসড। তাই বাসায় আইসা ফ্যান ছাইড়া অনলাইন পত্রিকা পড়েন উনি। এবং পত্রিকার ছবি ফেইসবুকে আপলোড দেন।

কারণ, উনি কিন্তু-কিন্তু-কিন্তু খুব স্মার্ট!

About Author

নাদিয়া ইসলাম
নাদিয়া ইসলাম

ফ্যাশন ডিজাইনার। লন্ডন সাউথ ব্যাংক ইউনিভার্সিটির ফরেনসিক সাইন্স থেকে পাশ করে এখন রিসার্চ সায়েন্টিস্ট হিসাবে কাজ করেন। ২০০৭ থেকে ইংল্যান্ডে আছেন। এর আগে বাংলাদেশে বসবাস করেছেন। জন্ম লিবিয়ার সির্তে। মিছুরাতায় থাকতেন। ১১ বছর বয়সে লিবিয়া ত্যাগ করেন।