page contents
সমকালীন বিশ্ব, শিল্প-সংস্কৃতি ও লাইফস্টাইল
লাইফস্টাইল

মাথা খাটানোর কাজ কি আলঝেইমার বা স্মৃতিহ্রাসের গতি কমায়?

গবেষণায় দেখা গেছে, যখন মানুষের মন সক্রিয় থাকে তাদের চিন্তাশক্তি তখন খুব একটা কমে না। ফলে, গেইমস, পাজল এবং ব্রেইন খাটানোর অন্যান্য জিনিসপত্র মেমোরি লস ও অন্যান্য মানসিক সমস্যাকে ধীর গতির করে দেয়।

৬৫ বছরের চেয়ে বেশি বয়সী ২৮০০ মানুষ নিয়ে একটি পরীক্ষা করা হয়। তারা ৫-৬ সপ্তাহ ধরে ১০ টি ব্রেইন ট্রেইনিং সেশনে গিয়েছিল। এই সেশনগুলিতে তিনটি বিষয়কে ফোকাস করে বিভিন্ন ট্যাকটিসের ওপর ফোকাস করা হয়:

  • স্মৃতিশক্তি
  • যুক্তি
  • কোনো তথ্য প্রসেস করার গতি

দেখা গেছে, যারা এই ট্রেইনিংগুলি নিয়েছে তাদের এই তিনটি দক্ষতা বৃদ্ধি পেয়েছে, এবং পরের ৫ বছর এই দক্ষতা টিকে থাকবে। এমনকি তাদের দৈনন্দিন কাজেও তাদের উন্নতি ঘটেছে। যেমন টাকা পয়সার হিসাব ও গৃহস্থালী কাজে তারা আগের চেয়ে ভালো করছে।

 

aljheimars-234

আলঝেইমারের লক্ষণ দেখা দেয়ার পরে যারা নিজেদের ব্রেইন বা মনকে ব্যস্ত রাখেন তাদের স্মৃতিশক্তি দ্রুত হ্রাস পায়।

আলঝেইমার ও ডিমেনশিয়া কীভাবে ঠেকানো যায়? ব্রেইন ট্রেইনিং এক্ষেত্রে সাহায্য করে কি?

একটি গবেষণায় দেখা গেছে মনের এক্সারসাইজ করলে চিন্তা করার দক্ষতা কম হ্রাস পায়। যদিও লোকজনের আলঝেইমারের লক্ষণ দেখা দেয়ার পরে যারা নিজেদের ব্রেইন বা মনকে ব্যস্ত রাখেন তাদের স্মৃতিশক্তি দ্রুত হ্রাস পায়। তবে, সম্ভবত মানসিকভাবে সক্রিয় থাকলে তা প্রথমে ব্রেইনকে আলঝেইমার থেকে ঠেকিয়ে রাখে, এবং আলঝেইমারের লক্ষণ পরে আর দেখা যায় না বা অনেক দেরিতে দেখা যায়।

যারা নিয়মিতই নিজেদের ব্রেইন বা মনকে চ্যালেন্জে রাখে তারা জীবনে খুব কম সময়ই স্মৃতিহ্রাসের মধ্যে কাটায়, যদি তাদের আলঝেইমার হয়ও, তা খুব দেরিতে হয়।

 

কী ধরনের ব্রেইন এক্সারসাইজ করা উচিৎ?

এটা আসলে একেকজনের ক্ষেত্রে একেক রকম। তবে আসল ব্যাপারটি হলো, আপনার ব্রেইনকে সক্রিয় রাখতে হবে এবং চ্যালেন্জ করতে হবে। যেমন আপনি এভাবে শুরু করতে পারেন, যে হাত দিয়ে আপনি সাধারণত খাওয়া দাওয়া করেন, সেটি ব্যবহার না করে হঠাৎ একদিন অন্য হাত ব্যবহার করলেন।

 

আরো যা যা করতে পারেন:

  • নতুন কিছু শিখুন, যেমন অন্য কোনো ভাষা বা কোনো মিউজিক ইন্সট্রুমেন্ট বাজানো।
  • আপনি সন্তান বা নাতি-নাতনি বা আপনার চেয়ে যথেষ্ট কম বয়সীদের সাথে বোর্ড গেম ধরনের খেলাগুলি খেলতে পারেন। বন্ধুদের সাথে তাস খেলতে পারেন। নতুন গেম খেলার চেষ্টা করতে পারেন। সামাজিক সংযোগও এ ক্ষেত্রে কাজে দেয়।
  • ক্রসওয়ার্ড নিয়ে কাজ করুন, অথবা বাচ্চাদের পাজল মিলান।
  • অনলাইনে মেমোরি গেম খেলুন। ভিডিও গেম খেলুন।
  • পড়ুন, লিখুন।

 

ব্রেইন অ্যাক্টিভিটি কীভাবে সাহায্য করে?

অন্যান্য প্রাণিদের ওপর গবেষণা করে দেখা গেছে মন সক্রিয় রাখলে:

  • আলঝেইমারের কারণে ব্রেইনের কোষগুলির নষ্ট হওয়ার হার কমে যায়
  • নতুন স্নায়ু কোষ গঠনে সাহায্য করে
  • স্নায়ু কোষগুলি একে অন্যকে সিগন্যাল পাঠানোর ক্ষেত্রে সক্রিয় থাকে

আপনি যখন আপনার ব্রেইনকে এক্সারসাইজ ও অন্যান্য কাজের মাধ্যমে ব্যস্ত রাখবেন তখন আপনি আপনার ব্রেইনের কিছু কোষকে সংরক্ষিত রাখবেন ও তাদের মধ্যে যোগাযোগ ঘটবে। আপনার হয়ত নতুন ব্রেইন কোষ তৈরিও হবে। এই কারণেই হয়ত বিজ্ঞানীরা আলঝেইমার ও প্রাথমিক লেভেলের শিক্ষার সাথে সম্পর্ক দেখেছেন। বিশেষজ্ঞরা মনে করেন, শিক্ষার কারণে যে অতিরিক্ত মানসিক সক্রিয়তা তৈরি হয় তা হয়ত ব্রেইনকে রক্ষা করে এবং এর কোষগুলির মাঝে সংযোগ দৃঢ় করে।

তবে শিক্ষা বা ব্রেইন অ্যাক্টিভিটি কোনোটাই আলঝেইমার ঠেকানোর নিশ্চিত উপায় না। তবে এগুলি আলঝেইমারের বা এই জাতীয় রোগের লক্ষণগুলিকে ঠেকিয়ে রাখে এবং ব্রেইনকে দীর্ঘদিন ভালোভাবে কাজ করতে সাহায্য করে।

About Author

সাম্প্রতিক ডেস্ক
সাম্প্রতিক ডেস্ক