মিশেল ওবামা ২০০৯ সালে প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সাথে ইংল্যান্ডের রানী এলিজাবেথ এর সাথে দেখা করতে গিয়েছিলেন। তখন একটা ফেসবুক পোস্টে শিম্পাঞ্জির সাথে মিশেলের দেহভঙ্গির তুলনা করেন মিনেসোটার একজন বর্তমান স্টেট সিনেটর।

কারিন হাউসলি নামের এ সিনেটর আমেরিকার রেগান প্রশাসনের স্মৃতিচারণা করে লিখেছিলেন, “আমি আসলেই ন্যান্সি রেগানকে খুব মিস করি৷ রোনাল্ডকে তো আরো বেশি মিস করি। এমনকি ‘বেডটাইম ফর বঞ্জো’ সিনেমার শিম্পাঞ্জিটাও মিশেল ওবামা-র চাইতে সোজা হয়ে দাঁড়াত।”

রানী, প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা, ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা

১৯৫১ সালের ওই সিনেমাতে ৪০ তম প্রেসিডেন্ট রোনাল্ড রেগান অভিনয় করেছিলেন।

ডেমোক্র্যাট সিনেটর পদপ্রার্থী টিনা স্মিথের বিপরীতে মধ্যবর্তী নির্বাচনে লড়ছেন কারিন হাউসলি। আসনটি এর আগে ডেমোক্র্যাট অ্যাল ফ্র‍্যাঙ্কেনের দায়িত্বে ছিল, যিনি ২০১৮ সালের জানুয়ারি মাসে যৌন অসদাচরণের দায়ে পদত্যাগ করেন।

রিয়েল ক্লিয়ার পলিটিক্সের একটা পোল অনুযায়ী গড়ে প্রায় ১০ পয়েন্টে মিস হাউসলির চেয়ে এগিয়ে আছেন মিস স্মিথ। হাউসলির নির্বাচনী ক্যাম্পেইনের মুখপাত্র জেক স্নাইডার বলেন, “অপ্রাসঙ্গিক” ফেসবুক পোস্টটিকে আবারো আলোচনায় আনার মাধ্যমে হাউসলির বিরুদ্ধে জনগণের ক্ষোভ তৈরির চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

আমেরিকার ইতিহাসের প্রথম কৃষ্ণাঙ্গ ফার্স্ট লেডি মিশেল ওবামা তার দায়িত্বকালে বেশ কয়েকবার এ ধরনের মন্তব্যের মুখে পড়েছিলেন। “হিল পরা বানর” থেকে শুরু করে “গরিলা ফেস” — বিভিন্ন রকম ইঙ্গিতপূর্ণ বর্ণবৈষম্যমূলক তুলনা করা হয় তাকে নিয়ে।

২০১৭ সালে ডেনভারে এ নিয়ে কথা বলেছিলেন তিনি। মিশেল ওবামা দুঃখের সাথে বলেন, “আট বছর এই দেশের জন্য এত পরিশ্রম করে‌ও এমন লোকদের দেখা পাওয়া যায় যারা আমার গায়ের রঙের জন্য আমার প্রকৃত সত্তাকে দেখতে অস্বীকৃতি জানায়”।

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here