ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে পল পগবার ভবিষ্যৎ কী হবে সেটা নিয়ে বিভিন্ন গুঞ্জন ঘুরপাক খাচ্ছে। জোরালো ভাবে শোনা যাচ্ছে পগবা নাকি ওল্ড ট্র্যাফোর্ড ছাড়ার কৌশল তৈরি করছে।

ম্যান ইউ’র কোচ হোসে মরিনহো’র সাথে সাম্প্রতিক সময়ে পগবার সম্পর্কের মারাত্মক অবনতি হয়েছে। পরিস্থিতি এতটাই সিরিয়াস যে এর ফলে পগবাকে চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ইয়ং বয়েজের বিপক্ষে ম্যাচ মিস দিতে হয়েছে। পুরো ম্যাচে পগবা সাইড বেঞ্চে বসে ছিলেন।

ফুটবল বিষয়ক বিভিন্ন সংবাদমাধ্যম বলছে তাদের দুজনের সম্পর্ক “প্রকাশ্য যুদ্ধ থেকে স্নায়ু যুদ্ধে পরিণত হয়েছে।”

পগবার এজেন্ট মিনো রায়োলা পগবার বের হওয়ার জন্য এমন একটা রাস্তা খুঁজছেন যেটা ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের কাছে অর্থনৈতিকভাবে গ্রহণযোগ্য হবে।

তবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড স্বীকার করেছে যে মার্কেটে পগবার চাহিদা উপরে থাকায় তারা পগবাকে ছাড়ার ব্যাপারে তেমন একটা আগ্রহী না।

এখানে বলে রাখা ভালো যে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডে আসার পরে পগবা নিজেকে কখনোই পুরোপুরি খাপ খাওয়াতে পারেন নি। হয় পগবার পারফরম্যান্স আশানুরূপ হয় নি, অথবা ক্লাবের কারো সাথে পগবার ব্যক্তিগত ঝামেলা চলেছে। তবে পরিস্থিতি বেশি খারাপ হয়েছে এই সামার মৌসুমে। পগবা বার্সেলোনায় যোগ দিচ্ছেন এমন গুঞ্জন বার বার শোনা গেছে।

পগবা তার আগের ক্লাব জুভেন্টাসে ফিরছেন এমন গুঞ্জনও বার বার শোনা গেছে। এমনকি এও শোনা গেছে যে পগবা তুরিন শহরের জুভেন্টাস ক্লাবে ফেরার ব্যাপারে তার সাবেক সতীর্থদের কাছে তীব্র আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

রাশিয়ায় ফ্রান্সের বিশ্বকাপ জয়ে পগবার গুরুত্বপূর্ণ অবদান ছিল। তবে বিশ্বকাপ থেকে ফিরে ম্যান ইউ’র হয়ে সেই পারফরম্যান্স পুরোপুরি দেখাতে পারেন নি পগবা, শুধু ঝলক দেখিয়েছেন। এই মৌসুমে ১৭টি ম্যাচে মাঠে নেমে পগবা মাত্র ৫টি গোল করেছেন এবং ৪টি গোলে সহায়তা করেছেন।

তবে বাজারে পগবার চাহিদা বেশ উচ্চ থাকায় পগবা সম্ভবত নিশ্চিন্তেই আছেন এবং ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ছাড়ার পরিকল্পনা করছেন।

Facebook Comments

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here