page contents
সমকালীন বিশ্ব, শিল্প-সংস্কৃতি ও লাইফস্টাইল
ব্লগ

মোল্লা আখতার মোহাম্মদ মনসুর—তালেবানদের শান্তিবাদী নতুন নেতা

আফগান তালেবানরা তাদের নতুন আমির বেছে নিয়েছে এমন একজনকে, যিনি আফগান সরকারের সঙ্গে শান্তিচুক্তি করার পক্ষপাতি। তার নাম আখতার মোহাম্মদ মনসুর (জন্ম ১৯৬০)। তালেবানদের মধ্যে তাকে ‘মডারেট’ বা ‘নরমপন্থি’ গণ্য করা হয়। তিনি তালেবান সরকারের আমলে বিমানমন্ত্রী ছিলেন।

তবে শুরুতেই এটা স্পষ্ট যে, আফগান সরকারের সঙ্গে লড়াইয়ের চেয়েও নতুন এই নেতার জন্য সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হয়ে দাঁড়াবে আইএসের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা। এখন পর্যন্ত আফগানিস্তানের বেশিরভাগ এলাকায় নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠাকারী তালেবানদের জন্য একপ্রকার দুশ্চিন্তারই বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে সিরিয়া ও ইরাকভিত্তিক এই নতুন জঙ্গি সংগঠন, যেটি আফগানিস্তানে প্রবেশের চেষ্টা চালাচ্ছে।

molla-omar-2

মোল্লা ওমর বেঁচে থাকলে এখন চেহারা কেমন হত—এফবিআইয়ের কমপিউটার জেনারেটেড ছবি।

আফগান তালেবানদের সুরা কাউন্সিল সম্প্রতি গোপনে বসে মোল্লা মনসুরকে নতুন আমির নির্বাচিত করে। বিকল্প খুব বেশি ছিল না। মোল্লা ওমরের অনুপস্থিতিতে গত দু বছর ধরে মোল্লা মনসুরই সংগঠনের একপ্রকার নেতৃত্ব দিচ্ছেন। ওই পদে তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী মোল্লা ওমরের জ্যেষ্ঠ পুত্র ২৬ বছর বয়সী মোল্লা মোহম্মদ ইয়াকুব, যাকে তিনি আগেই পরাস্ত করেছেন। আর তাছাড়া শোনা যায়, মোল্লা ওমরও তার জীবদ্দশায় মনসুরকেই তার ডেপুটি হিসেবে বেছে নিয়েছিলেন।

লক্ষ্য করার বিষয়, মোল্লা ওমর নিহত হওয়ার খবরটি এসেছে আফগান সরকারের পক্ষ থেকে। আর তারই প্রতিক্রিয়ায় নতুন নেতা বেছে নিলো তালেবানরা। অথচ মোল্লা ওমর নিহত হয়েছেন আরো দু বছর আগে, যক্ষা রোগে ভূগে। আর আফগান সরকারও এই ঘোষণা দিয়েছে এমন এক সময়ে যখন পাকিস্তানে তালেবানদের সঙ্গে তাদের শান্তি আলোচনা শুরু হয় হয়। এই ঘোষণার পর ওই শান্তি আলোচনা পণ্ড হয়ে যায়। তালেবানরা তাদের নতুন নেতা নির্বাচন নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ে।

masoor-1

১৬ জুন ২০১৫ তারিখে ‘লং ওয়ার জার্নালে’ প্রকাশিত মোল্লা মনসুরের ছবি

নতুন নেতা নির্বাচিত হয়েও অবশ্য মোল্লা ওমর শান্তি আলোচনা এগিয়ে নেওয়ার কাজে হাত দিয়েছেন। হাজী দ্বীন মোহাম্মদ নামে এক নেতাকে তিনি দায়িত্ব দিয়েছেন। তালেবান সুরা পরিষদের সব নেতা যে এই শান্তি প্রক্রিয়ার পক্ষপাতি, তা নয়।

মোল্লা মনসুর কান্দাহারের মানুষ। মোল্লা ওমরও ওই এলাকার। পশতুভাষী এই প্রদেশের লোকেরাই তালেবান নেতৃত্বে সামনের সারিতে থাকে।

কিছুদিন আগে মোল্লা মনসুর জঙ্গি সংগঠন আইএসের প্রতি হুশিয়ারি উচ্চারণ করেছেন এই বলে যে, আফগানিস্তানে তালেবানদের পাশে অন্য কোনো সংগঠনকে খাতির করা হবে না। আইএস প্রধান আবু বকর আল বাগদাদীকে পাঠানো এক চিঠিতে তিনি সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, “তালেবানরা মনে করে না আফগানিস্তানে একাধিক জিহাদি সংগঠন ইসলামের জন্য উপকারি হবে।”

About Author

সাম্প্রতিক ডেস্ক
সাম্প্রতিক ডেস্ক