গবেষণায় দেখা গেছে আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি, উন্নত স্মৃতিশক্তি, অধিক শক্তির সাথে ভালো দেহভঙ্গি জড়িত।

একেবারে সোজা হয়ে দাঁড়ালে আপনি আরাম বোধ করবেন। শুধু শারীরিকভাবেই নয়, মানসিক এবং আবেগের দিক থেকেও আপনি ভালো বোধ করবেন। সুতরাং, এখন থেকে এভাবেই দাঁড়াতে চেষ্টা করুন। এটি নিশ্চিতভাবে আপনার মুড ভালো করে দিবে, সেইসাথে আপনি অনেক আত্মবিশ্বাস পাবেন।

গবেষণায় দেখা গেছে আত্মবিশ্বাস বৃদ্ধি, উন্নত স্মৃতিশক্তি, অধিক শক্তির সাথে ভালো দেহভঙ্গি জড়িত। এর শারীরিক উপকার অসংখ্য। সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা গেছে শিশুদের শেখার ক্ষমতার ওপর তাদের শারীরিক ভঙ্গির প্রভাব আছে। মেরুদণ্ড সোজা থাকলে যেকোনো জিনিস সহজে শেখা যায়।

২০১৪ সালের একটি গবেষণা থেকে জানা গেছে, সঠিক শারীরিক ভঙ্গির সাথে কর্মশক্তি বৃদ্ধি এবং উন্নত যৌন জীবনের সম্পর্ক আছে। জবুথবু ভাবে থাকলে আমাদের মেরুদণ্ডে, বিভিন্ন অঙ্গে, পেশিতে চাপ পড়ে এবং সমস্ত শক্তি শেষ হয়ে যায়।

আপনি সারাদিন কম্পিউটার টেবিলের সামনে বসে থাকার ফলে ঘাড়ে এবং মেরুদণ্ডে যে ব্যথা অনুভব করেন তা ঘটে আসলে সারাদিন নড়াচড়াবিহীনভাবে ভুল ভঙ্গিতে বসে থাকার কারণে। জবুথবুভাবে থাকলে আপনার লিগামেন্ট দুর্বল হয় এবং লিগামেন্টে চাপ পড়ে, ফুসফুসে চাপ পড়ে এবং পরিপূর্ণভাবে নিঃশ্বাস নেওয়া কঠিন হয়ে পড়ে। এর ফলে মাথাব্যথাও হয়।

এজন্যেই আপনার উচিত প্রতিদিন ব্যায়াম করা এবং কাজের ফাঁকে একটু নড়াচড়া করা। আমরা যখনই মোবাইল ফোনে মনোযোগ দেই আমাদের শারীরিক ভঙ্গির ব্যাপারে অসচেতন হয়ে পড়ি। সারাদিন বসে থাকার যে স্বাস্থ্যঝুঁকি তার কথা বাদ দিলেও, আমরা শারীরিকভাবে কেমন বোধ করি তার ওপর এর প্রভাব রয়েছে।

সারাদিন টানা বসে থাকলে ওবেসিটি, ডায়াবেটিস, হৃদরোগ এবং স্মৃতিশক্তির সমস্যা হওয়ার ঝুঁকি বেড়ে যায়।

শুধু আপনার দেহভঙ্গির ব্যাপারে সচেতন হয়ে, একটু পর পর নড়াচড়া করে, বিশেষ করে যখন আপনি দীর্ঘ সময় ধরে কম্পিউটার বা অন্যান্য ডিভাইসের সামনে বসে থাকেন তখন আপনি আপনার স্বাস্থ্যে বড় ধরনের পরিবর্তন আনতে পারেন।