page contents
লাইফস্টাইল, সংস্কৃতি ও বিশ্ব
লাইফস্টাইল

যে ৫ কারণে জাতিসংঘ বিশ্বাস করে জুলিয়ান অ্যাসান্জের বন্দিত্ব অবৈধ

এক বছরেরও বেশি সময় তদন্তের পরে ২০১৬ সালের ৫ ফেব্রুয়ারি ঘোষণা করেছে যে উইকিলিকসের ফাউন্ডার জুলিয়ান অ্যাসান্জ ৫ বছর ধরে খামখেয়ালিপূর্ণ বন্দিত্বের শিকার।

এই খামখেয়ালি বন্দিত্ব নিয়ে কাজ করা জাতিসংঘের দলটির বক্তব্যে ব্রিটিশ ও সুইডিশ কর্তৃপক্ষের প্রতি কঠোর মনোভাব দেখানো হয়েছে। ইকুয়েডরের একটি তদন্তে বলা হয়েছিল অ্যাসান্জ সঠিক প্রক্রিয়া থেকে বঞ্চিত হয়েছেন, জাতিসংঘ সেই বক্তব্যকে স্বীকার করেছে।

নিচে জাতিসংঘের রায় থেকে ৫টি উল্লেখযোগ্য বিষয়।

julian-assange3

জুলিয়ান অ্যাসান্জ

১. টানা ৫ বছর ধরে অ্যাসান্জ বন্দি আছেন
যুক্তরাজ্য কর্তৃপক্ষ দীর্ঘদিন ধরে দাবি করে আসছে যে অ্যাসান্জকে তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে আটকে রাখা হয় নি, তিনি স্বেচ্ছায় ইকুয়েডরের দূতাবাসে প্রবেশ করে এই অচলাবস্থা শুরু করেছেন এবং দীর্ঘদিনের এক ফাঁদে পড়ে গিয়েছেন। WGDA (Working Group on Arbitrary Detention) বা এই খামখেয়ালি বন্দিত্ব নিয়ে কাজ করা দলটি এই দাবি গ্রহণ করে না, তাদের মতে, দূতাবাসের বাইরে জোর পুলিশি উপস্থিতি এবং গ্রেপ্তারের হুমকিই এই খামখেয়ালি বন্দি অবস্থা তৈরি করেছে।

এই বন্দিত্বের সময়কাল ধরে জারি থাকা অ্যারেস্ট ওয়ারেন্টের বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ও যৌক্তিক আইনি অধিকার অ্যাসান্জকে দেওয়া হয় নি।

২. ইকুয়েডর দূতাবাসে পালিয়ে যাওয়ার অনেক আগেই অ্যাসান্জ খামখেয়ালি বন্দিত্বের শিকার হয়েছেন
২০১০ সালে যুক্তরাজ্যের দ্বারা অ্যাসান্জের আগেও বন্দি হওয়ার প্রমাণ আছে। ওয়ান্ডসওয়র্থে তাকে অপ্রয়োজনীয়ভাবে ১০ দিন ‘আলাদা’ করে রাখা হয়। সেখান থেকে মুক্ত হলে ইকুয়েডর দূতাবাসে আশ্রয় নেওয়ার আগে তাকে গৃহবন্দি করা হয়। WGAD বলছে, এই পর্ব শুরু হওয়ার অনেক শুরুতেই তাকে আলাদা বন্দি করে রাখা হয়েছিল যা শেষ পর্যন্ত ৫ বছরে গড়িয়েছে।

৩. শুধু ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষকেই দোষ দেওয়া যায় না
অ্যাসান্জের নামে ওয়ারেন্ট বের করার জন্য সুইডিশ প্রসিকিউশকে দায়ী সাব্যস্ত করেছে WGDA. তারা বলেছে সুইডিশ কর্তৃপক্ষের অধ্যবসায়ের অভাবের কারণে মি. অ্যাসান্জকে দীর্ঘদিন বন্দি থাকতে হয়েছে। তারা আরো বলেছে সুইডিশ ও আন্তর্জাতিক উভয় আইনের অধীনেই অ্যাসান্জকে তার অধিকার প্রদান করতে ব্যর্থ হয়েছে সুইডিশ প্রসিকিউশন।

জাতিসংঘের রিপোর্টে বলা হয়েছে, সুইডিশ আইন অনুসারে সুইডিশ সরকার নির্দেশ দেয় যে তদন্ত কার্যের যেইসব ম্যাটেরিয়ালের ওপর ভিত্তি করে অভিযোগ গঠন করা হয়, একজন আসামীর সেগুলি পরীক্ষা করে দেখার সুযোগ রয়েছে।

অ্যাসান্জকে যুক্তরাজ্যে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য অনেকবার প্রস্তাব দিয়েছিল সুইডিশ কর্তৃপক্ষ। রিপোর্টে বলা হয়েছে অ্যাসান্জের সাথে তদন্তের স্বার্থে মিলিত হওয়ার জন্য আরো উদ্যোগী হওয়া উচিৎ ছিল সুইডিশ প্রসিকিউশনের।

৪. ইকুয়েডরিয়ান তদন্তের অন্তত একটি সিদ্ধান্ত খণ্ডন করেছে জাতিসংঘ
WGAD এর রুলিং-এ যুক্তরাজ্য ও সুইডেনের সমালোচনা করা হয়েছে, কিন্তু ইকুয়েডরের আচরণ নিয়ে কোনো কিছু বলা হয় নি। তারা বলেছে, দ্য রিপাবলিক অব ইকুয়েডর এই আশ্রয় প্রদান করেছে কারণ মি. অ্যাসান্জ ভয় পান যে তাকে যদি সুইডেনে হস্তান্তর করা হয় তাহলে তাকে সেখান থেকে যুক্তরাষ্ট্রে হস্তান্তর করা হবে এবং সেখানে তাকে সিরিয়াস কোনো অপরাধের অভিযোগে অভিযুক্ত করা হবে।

অ্যাসান্জকে ভ্রমণের স্বাধীনতা দেওয়ার ব্যাপারে ইকুয়েডরের দাবির প্রতি সমর্থন জানিয়েছে জাতিসংঘের এই দলটি। অ্যাসান্জের কেস-এ ইকুয়েডরের তদন্তের একটি সিদ্ধান্ত নিশ্চিত করেছে জাতিসংঘ। তাকে যথাযথ প্রক্রিয়া প্রদান করতে অস্বীকার করা হয়েছে।

৫. খুব দ্রুতই অ্যাসান্জ মুক্ত হবেন
জাতিসংঘের দলটি দাবি করেছে সুইডিশ ও ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ মি. অ্যাসান্জের এই বন্দিদশা শেষ করবে। দলটির চেয়ারপারসন সিওং-ফিল হং ব্যাখ্যায় বলেছেন, দলটি মনে করে যে মি. অ্যাসাঞ্জের এই খামখেয়ালি বন্দিত্ব শেষ হওয়া উচিৎ, তার শারীরিক ও চলাফেরার স্বাধীনতার সম্মান পাওয়া উচিৎ, এবং তার ক্ষতিপূরণ দাবি করার অধিকার পাওয়া উচিৎ।

About Author

সাম্প্রতিক ডেস্ক
সাম্প্রতিক ডেস্ক