page contents
সমকালীন বিশ্ব, শিল্প-সংস্কৃতি ও লাইফস্টাইল
ব্লগ

আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে রেঞ্চ ‘ইমেইল’ করল নাসা

এই প্রথম ভূপৃষ্ঠে ডিজাইন করা হার্ডওয়ার ‘ইমেইল’ করা হল মহাকাশ স্টেশনে। ক্যালিফোর্নিয়ার মেইড ইন স্পেস-এর মাইক চেন ও তার সহকর্মীরা কম্পিউটারে বসে ইন্টারন্যাশনাল স্পেস স্টেশনের থ্রিডি প্রিন্টার জিরো-জিতে পাঠালেন একটি র‍্যাচেটিং সকেট রেঞ্চ।

মহাকাশ স্টেশন থেকে কম্যান্ডার ব্যারি উইলমোর (বুচ) জানিয়েছিলেন তার রেঞ্চের চাহিদার কথা। রেডিওতে তা জানতে পেরে পৃথিবীতে বসে মাইক ও তার সহকর্মীরা ডিজাইন করেন উল্লেখিত রেঞ্চটির। মাইক চেন বলেন, রকেটের চাইতে দ্রুত আমরা রেঞ্চটি পাঠিয়ে দিয়েছি মহাকাশ স্টেশনে। এই প্রথম আমরা কোনো হার্ডওয়ার ‘ইমেইল’ করলাম স্পেসে।

মহাকাশ স্টেশনে পাঠানোর জন্যে রেঞ্চ ডিজাইন করছেন নাসার ডিজাইনার নোয়া পল-জিন।

মহাকাশ স্টেশনে পাঠানোর জন্যে রেঞ্চ ডিজাইন করছেন নাসার ডিজাইনার নোয়া পল-জিন।

Barry Wilmore

মহাকাশ স্টেশনে আইএসএস কমান্ডার ব্যারি উইলমোর, হাতে সদ্য ইমেইলকৃত থ্রিডি রেঞ্চ।

তার কথায়, “আমরা স্পেসের জন্যে প্রথমবারের মত থ্রিডি প্রিন্টার ডিজাইন ও তৈরি করতে মেইড ইন স্পেস, ইনক. চালু করেছি।”

উল্লেখ্য, মেইড ইন স্পেস মাইক্রোগ্র্যাভিটির উপযোগী থ্রি-ডি প্রিন্টার বানিয়ে মহাকাশ স্টেশনে পাঠিয়ে সেট আপ করেছে সেপ্টেম্বর ২০১৪ তে। এক মাসের মধ্যে মহাকাশযাত্রীরা সেই প্রিন্টার থেকে তাদের প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র থ্রিডিপ্রিন্ট করতে শুরু করেছেন। তারা প্রথমেই বানিয়েছেন থ্রিডি প্রিন্টারের কেসিং-এর জন্যে রিপ্লেসমেন্ট ফেসপ্লেট (ছবি নিচে)।

faceplate 3d

জিরো-জিতে বানানো থ্রিডি প্রিন্টারের কেসিং-এর জন্যে রিপ্লেসমেন্ট ফেসপ্লেট

 

নভেম্বরে নাসা প্রকাশিত এক বার্তায় বলা হয়,  আমরা এই অংশটা প্রথমে প্রিন্ট করার জন্য বেছে নিয়েছি কারণ থ্রিডি প্রিন্টার যদি স্পেসের জন্য খুঁটিনাটি এবং বদলি জিনিস বানাতে চায় তবে প্রিন্টারের বদলযোগ্য অংশও বানাতে পারতে হবে।

আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে সংস্থাপিত থ্রিডি প্রিন্টার

আন্তর্জাতিক মহাকাশ স্টেশনে সংস্থাপিত থ্রিডি প্রিন্টার জিরো-জি

রিপ্লেসমেন্ট ফেসপ্লেট তৈরির পর আরো প্রায় ২০টি জিনিস থ্রিডি প্রিন্ট করা হয়েছে স্পেস স্টেশনে বসে। সে সবের ডিজাইন অবশ্য করা হয়েছিল থ্রিডি প্রিন্টারটি মহাকাশে পাঠানোর আগে। আর ডিজাইনের ফাইল পরে পৌঁছানো হয়েছিল কার্গো সাপ্লাই ফ্লাইটে করে।

ব্যারি উইলমোর থ্রিডি প্রিন্টার চালু করছেন।

ব্যারি উইলমোর থ্রিডি প্রিন্টার চালু করছেন।

মহাকাশে করা শুরুর দিককার এই সব থ্রিডি প্রিন্টেড বস্তু সামগ্রী পরীক্ষা নিরীক্ষার জন্য ২০১৫ সালে পৃথিবীতে ফিরিয়ে আনা হবে। গবেষকরা মাইক্রোগ্র্যাভিটির প্রভাব বোঝার জন্য পৃথিবীতে তৈরি বস্তুসামগ্রীর সঙ্গে তুলনা করবেন স্পেসে তৈরি বস্তুসামগ্রীর।

মাইক চেন জানান, আমরা যখন মুন, মার্স বা অন্য কোথাও উপনিবেশ স্থাপন শুরু করব, দরকারি জিনিসপত্রের জন্যে কেবল রকেটের অপেক্ষায় থাকলে চলবে না। আমাদের যা কিছু দরকার পড়বে, আমরা সেগুলি সেখানে বানিয়ে নিতে পারব।

About Author

সানিয়া রুশদী
সানিয়া রুশদী

বিদ্যায়তন: উদয়ন বিদ্যালয় (ঢাকা, বাংলাদেশ), কাওয়ান্ডিলা প্রাইমারি স্কুল (অ্যাডেলেইড, অস্ট্রেলিয়া), ওকলি হাই স্কুল (মেলবোর্ন, অস্ট্রেলিয়া), মেন্টোন গার্লস সেকেন্ডারি কলেজ (মেলবোর্ন, অস্ট্রেলিয়া), মোনাশ ইউনিভার্সিটি (মেলবোর্ন, অস্ট্রেলিয়া), ইউনিভার্সিটি অফ সিডনি (সিডনি, অস্ট্রেলিয়া), ডিকিন ইউনিভার্সিটি (মেলবোর্ন, অস্ট্রেলিয়া)। লেখাপড়া ও কাজকর্ম: প্রাথমিক শিক্ষা ঢাকায় উদয়ন স্কুলে। ১৯৮৭ সাল (স্কুলের ৪র্থ শ্রেণী) নাইজেরিয়াতে কেটেছে। ৫ম শ্রেণী উদয়ন স্কুলে শেষ করে, ১৯৮৯ সাল থেকে অস্ট্রেলিয়াতে আছেন। বর্তমানে অস্ট্রেলিয়ার মেলবোর্ন শহরে আছেন। মোনাশ ইউনিভার্সিটি, সিডনি ইউনিভার্সিটি ও ডিকিন ইউনিভার্সিটিতে জৈব বিজ্ঞান ও মনোবিজ্ঞান পড়েছেন।