page contents
সমকালীন বিশ্ব, শিল্প-সংস্কৃতি ও লাইফস্টাইল
ব্লগ

‘এটি আমার প্রথম ও শেষ নাটক’ — নুসরাত ফারিয়া মাজহার

টপ সেলিব্রেটিদের একজন নুসরাত ফারিয়া মাজহার। টিভি চ্যানেল আর রেডিওসহ একাধারে বিভিন্ন অনুষ্ঠান উপস্থাপনার পাশাপাশি পারফর্মও করেছেন বেশ কিছু জনপ্রিয় অনুষ্ঠানে। শুরু থেকেই মরীচিকা  ছবি দিয়ে আলোচনায় থাকলেও চলচ্চিত্রটির শুটিং শুরু হয় নি এখনো। সিনেমার কাজ ছাড়াও এবার কাজ করবেন ঈদের নাটকে। ঈদ সামনে রেখে তার ব্যস্ততা নিয়ে কথা বললেন নুসরাত ফারিয়া।

 

ঈদ নিয়ে আপনার ব্যস্ততা কেমন?

আমার ঈদ মূলত বাক্সবন্দি অবস্থাতেই কেটে যায়। বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে উপস্থাপনা আর রেডিওতে বক বক করেই ঈদের ব্যস্ততা কাটবে। এবার বেশ কয়েকটি চ্যানেলে উপস্থাপনা করবো। এছাড়া এবার বিটিভির জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘আনন্দমেলা’য় আমি নাচবো। যেখানে আমি তিন-চার ধরনের নাচ উপস্থাপন করবো।


প্রতি ঈদেই তো আপনাকে উপস্থাপনায় দেখা যাচ্ছে, সেসবের মাঝেও এবার বিশেষ কী থাকছে?

এবার কয়েকটি চ্যানেলে ধারাবাহিক লাইভ প্রোগ্রাম করবো। ঈদের শুরু থেকে প্রায় শেষ পর্যন্ত। প্রায় সবগুলোই আমার কাজে একটি বিশেষ মাত্রা যোগ করে। তবে এবার আমার একটি লাইভ অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে থাকবেন কলকাতার জনপ্রিয় সঙ্গীতশিল্পী মোনালি ঠাকুর। কিঞ্চিৎ আলাদা করে বলতে গেলে সেই অনুষ্ঠানটির জন্য আমি হয়তো অপেক্ষা করছি। যা আমার অভিজ্ঞতায় এক বিশেষ অনুষ্ঠান।


শুরু থেকেই মরীচিকা  ছবিটি আলোচনায় থাকলেও, আপনার প্রথম এই চলচ্চিত্রের শুটিং এখন পর্যন্ত শুরু হয়নি, কারণ কী?

ছবিটি বিশেষ কিছু নিয়ে আসছে সেটুকু বলতে পারি। শুটিং শুরু হবার কথা আরও অনেক আগে থেকেই। কিন্তু বিভিন্ন কারণে শুরু হয় নি। এর মধ্যে বিশেষ কারণ ছবির চিত্রনাট্য। শুরু থেকে এখন পর্যন্ত ছবির চিত্রনাট্যের উপর জোর দেয়া হচ্ছে। কয়েকবার কাটাকুটি করা হয়েছে। আমাদের দর্শকরা এখন ডিজিটালেও একঘেয়েমি গল্প দেখে যাচ্ছে। তাই শুধু ডিজিটাল ক্যামারায় ছবি বানালেই হবে না। ছবির মূল গল্পের প্রতি নজর বাড়ানো দরকার। সেই জায়গা থেকে রেদওয়ার রনির প্রথম ছবি ‘চোরাবালি’তে যথেষ্ট চেষ্টা করা হয়েছে গল্পের ভিন্নতা রাখার। সেই ধারাবাহিকতায় তার দ্বিতীয় ছবিতেও ভিন্ন স্বাদ থাকবে। প্রি প্রোডাকশনের কাজ এখন প্রায় শেষ পর্যায়ে। ইনশাল্লাহ আগামী মাস থেকে শুটিং শুরু হয়ে যাবে।

n4


ছোট পর্দায় কাজ করলেও এখন পর্যন্ত কোন নাটকে অভিনয় করেন নি, সরাসরি বড় পর্দায় উপস্থিত হতে যাচ্ছেন,  তাহলে কি এই অনুপস্থিতি শুধু ফেইমের জন্য?

আমি এখন পর্যন্ত অনেক নাটকের কাজের প্রস্তাব পেয়েছি। কিন্তু বিভিন্ন কারণেই করা হয়ে ওঠে নি। আর মূল কারণ হচ্ছে নাটকে অভিনয় আমার কাছে কঠিন মনে হয়। কারণ অল্প কিছু সময়ে নিজেকে প্রমাণ করতে হয়। বড়পর্দার জন্য অনেকটা সময় পাওয়া যায়। এই ঈদে একটি নাটকে হয়তো দর্শকরা আমকে দেখতে পাবেন। তবে এটিই আমার প্রথম ও শেষ নাটক। আর বড়পর্দায় সরাসরি যাওয়াটা কোন ফেইমের জন্য না। একটা আগ্রহ থেকেই কাজ করতে ইচ্ছুক। তবে গল্পের ব্যাপারে নজর দিয়েই কাজ করছি।

রেডিও ফুর্তিতে নতুন এক প্রোগ্রাম নিয়ে আসছেন, এই প্রসঙ্গে কিছু বলুন?

রেডিও ফুর্তিতে আমার আরজে ক্যারিয়ারের এক বছর পূরণ হলো। আর সেই উপলক্ষে কর্তৃপক্ষ আমাকে নতুন একটি প্রোগ্রাম উপহার দিয়েছেন। অনেকেই আছেন যারা রাতে জেগে থাকেন বা কাজের খাতিরে জেগে থাকতে হয়। অনুষ্ঠানটির নাম ‘দি লাভ বাডর্স’। প্রেম বিষয়ক অনুষ্ঠানটিতে প্রেম, ভালোবাসা নিয়েই মূলত আলাপচারিতা হবে। প্রতি মঙ্গলবার রাত ১১টা থেকে ২টা পর্যন্ত রেডিও ফুর্তিতে অনুষ্ঠানটি শুনতে পাবেন শ্রোতারা।

 

About Author

মোস্তাফিজ মিঠু

স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটিতে গনযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগে পড়ছেন। জন্ম- ঢাকা, অক্টোবর, ১৯৯২।