page contents
সমকালীন বিশ্ব, শিল্প-সংস্কৃতি ও লাইফস্টাইল
ব্লগ

কেবল উপরে-নিচে নয়, লিফট যাবে ডানে এবং বামেও

জার্মান ইঞ্জিনিয়াররা এমন এক ধরনের এলিভেটর তৈরি করেছে যেটি শুধু উপরে আর নিচেই ওঠা-নামা করে না, এটি সাইডের দিকে, খাড়া পথে, সামনে এবং পিছনেও নিয়ে যেতে পারে।

এটি তৈরি করেছে জার্মান স্টিল এবং ইঞ্জিনিয়ারিং কোম্পানি থাইসিনক্রাপ। এই এলিভেটরটি চৌম্বক প্রবাহের মাধ্যমে কাজ করে, অনেকটা সাম্প্রতিককালের পৃথিবীর সবচেয়ে দ্রুততম ট্রেনের মত।

বলা হয়েছে, ২০১৬ থেকে এই এলিভেটরটি ব্যবহারিকভাবে পরীক্ষা করা শুরু হবে।

ম্যাগলেভ নামের এই এলিভেটরটি ম্যাগনেটিক সুপার কন্ডাক্টরের সিস্টেম ব্যবহার করে কাজ করে। এক্ষেত্রে এলিভেটরের ভিতর এবং বাইরের তীর্যক দেয়াল একে অন্যকে বিকর্ষণ করে। ফলে এলিভেটরটি একটি নির্দিষ্ট দিকে চলে বা মুভ করে।

ট্রেনগুলি এই সিস্টেম কাজে লাগিয়ে ফ্রিকশন বা ঘর্ষণের মাধ্যমে গতি না কমিয়েই ঘণ্টায় ৫০০ কিলোমিটার বেগে চলতে পারে। এই নতুন এলিভেটরটি বর্তমানের অন্যান্য এলিভেটরগুলির চেয়ে দ্রুতগতির হলেও গতি এর প্রধান লক্ষ্য নয়। এটা তৈরি করা হয়েছে কোনো ভবনে একটি তীর্যক বৃত্তাকার পথ তৈরির জন্য, যে পথটি অনেকগুলি এলিভেটর একসাথে ব্যবহার করতে পারবে (নিচের ছবিতে যেমন দেখা যাচ্ছে)। এর মানে দাঁড়াচ্ছে, পরবর্তী লিফটের জন্য অপেক্ষা করার দিন একেবারে শেষ হয়ে যাবে।

maglev elvtr
এর আরেকটি দিক হল, ইঞ্জিনিয়াররা এখন বিভিন্ন আকারের লম্বা ভবন বানাতে পারবেন, অথবা কোম্পানিটির একজন প্রধান কর্মকর্তা প্যাট্রিক বাস যেমন বললেন, আগে যে ধরনের বিল্ডিং তৈরির শুধু স্বপ্ন দেখা হত সেগুলি এখন বানানো সম্ভব হবে।

রিচার্ড ম্যাকাওলে বলেন, উঁচু ভবন ও একদম সন্নিবিষ্ট শহর পরিবেশের জন্য ভাল এবং শহরের জনসংখ্যা বাড়ার সাথে সাথে এই দুইটির গুরুত্ব আরো বেড়ে যাবে। কিন্তু এলিভেটরগুলির পরিবর্তন এত ধীরে হয়েছে যে এটি উঁচু এবং সন্নিবিষ্ট ভবন ও কাঠামোর তৈরির ক্ষেত্রে বাঁধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। সাধারণ এলিভেটরগুলি একটি ভবনের চল্লিশ শতাংশ মানুষকে ধারণ করতে পারে, এর ফলে বর্তমান ডিজাইনের উঁচু বিল্ডিংগুলিতে পরবর্তী লিফটের জন্য দীর্ঘক্ষণ অপেক্ষা করতে হয়।

থাইসিনক্রাপের লক্ষ্য হল এই অবস্থার পরিবর্তন করা, এবং বর্তমানের তুলনায় পরিবহণ ক্ষমতা কমপক্ষে অর্ধেক বেশি রাখা।

ম্যাগলেভ এলিভেটর সম্পর্কে নিচের ভিডিওতে দেখুন –

MULTI – the world’s first rope-free elevator system

এ সম্পর্কে কেউই আগে ভাবে নি। কিন্তু এখন যখন এই আইডিয়া এসেছে, এটা বিশ্বাস করা কঠিন যে আমরা এতদিন নিজেদের এরকম একটি ধীরগতির ডিভাইসের সিস্টেমে আটকে রেখেছি।

বিখ্যাত কোম্পানি হিটাচিও নতুন ধরনের এলিভেটর তৈরির কাজ করছে।

Circulating Multi-Car Elevator System “Exponential increase in carrying capacity” – Hitachi

ব্যাপারটি উত্তেজনাকর। ভবিষ্যৎ এখন পাশ থেকেও দেখা যাচ্ছে।

About Author

সাম্প্রতিক ডেস্ক
সাম্প্রতিক ডেস্ক