page contents
সমকালীন বিশ্ব, শিল্প-সংস্কৃতি ও লাইফস্টাইল
ব্লগ

জব ইন্টারভিউতে যদি জিজ্ঞেস করা হয়, “আপনার কাজের পদ্ধতি কী”, উত্তরে কী বলবেন

job-int-12

চাকরির ইন্টারভিউতে আপনি কী কী জানেন তা জানার জন্যেই কেবল আপনাকে প্রশ্ন করা হয় না।

আপনার উত্তর থেকে চাকরিদাতারা আপনার কাজ করার সামর্থ্য, দক্ষতা, বুদ্ধি-বিবেচনা এসবও যাচাই করে থাকেন।

ফলে আপনি কত সঠিক উত্তর দিচ্ছেন তার সাথে সাথে কীভাবে উত্তরটি দিচ্ছেন সেটাও সমান গুরুত্বপূর্ণ।

সুতরাং যখন আপনাকে জিজ্ঞেস করা হবে, এবার বলুন, আপনাকে দায়িত্ব দেয়া হলে কীভাবে কাজ করবেন বা আপনার কাজ করার ধরনটি কী তখন আপনি উত্তর দেওয়ার মাধ্যমে নিজেকে মনোযোগী, চিন্তাশীল ও বিবেচনাশীল হিসেবে তুলে ধরুন।

আপনার সামর্থ্য ও দক্ষতা সম্পর্কে উদাহরণ দিয়ে আপনার কাজ করার ধরন সম্পর্কে বলুন।

১. এই প্রশ্ন কেন জিজ্ঞেস করা হয়

যদি আপনাকে কাজের ধরন সম্পর্কে বলতে বলা হয় তবে বুঝবেন আসলে তারা জানতে চাইছেন চাকরি পেলে আপনি প্রতিষ্ঠানের কালচারের সঙ্গে কতটা মানিয়ে নিতে পারবেন।

এ ছাড়া আপনি কতটা প্রফেশনাল তা বোঝার জন্যেও এ প্রশ্ন করা হয়। যদি আবেদনকারী গৎবাঁধা বা অনির্দিষ্ট উত্তর দেন তাহলে প্রশ্নকারী বুঝে নেন আবেদনকারী খুব সচেতন ব্যক্তি না, তিনি কেবল ইন্টারভিউটুকু পার হওয়ার চেষ্টা করছেন।

মনে রাখবেন, এই প্রশ্নে আপনার নিজের প্রফেশনালিজম তুলে ধরার দারুণ সুযোগ তৈরি হয়। আর নিয়োগদাতারা কাজের ক্ষেত্রে আপনার প্রফেশনালিজমই দেখতে চান।

২. নিজের কাজের ধরন সম্পর্কে স্পষ্ট ধারণা রাখুন

এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার প্রথম ধাপ হলো প্রশ্নটি আপনি বুঝতে পেরেছেন এমন প্রতিক্রিয়া দেয়া। আপনি নিজের কাজের ধরন যদি যথাযথভাবে বুঝে থাকেন তাহলেই সেটা পারবেন।

এই প্রশ্নটির জন্য নিজেকে প্রস্তুত করুন। কারণ এই প্রশ্নের মাধ্যমেই নিয়োগদাতা জানতে পারবেন, আপনার কাছ থেকে তিনি কী কাজ আশা করতে পারেন।

এ জাতীয় প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার আগে কাজের ধরনের চারটি মৌলিক বিষয় সম্পর্কে সচেতন হোন। যেগুলি হচ্ছে:

কাজ করা—কর্মীরা আলাদা আলাদা যে যে যার যার মত বিচ্ছিন্ন থেকে কাজ সমাধা করে।

নেতৃত্ব দেওয়া—যারা নেতৃত্ব দেয় তারা জানে কীভাবে একটি ভিশন তৈরি করতে হয় এবং অন্যদের সফল হওয়ার জন্য উৎসাহিত করতে হয়।

ভালোবাসার সম্পর্ক—সম্পর্ক স্থাপনকারীরা ভালোবাসার মাধ্যমে টিম বা গ্রুপের শক্তি উজ্জীবিত করে।

শেখা—যারা শেখে তারা আসলে রিসার্চ করে বা খুঁজে খুঁজে তারা কাজ সমাধান করার উপায় বের করে।

সুতরাং, এই চারটির মধ্যে ঠিক কোনটি আপনার কাজ করার ধরনের সাথে যায়? আপনি যদি তা জানেন তাহলে আপনার জন্য এর পরের ধাপ।

৩. একটি নির্দিষ্ট কাজের উদাহরণ দিয়ে উত্তর দিন

যখন আপনি জানেন কোন পদ্ধতিটি আপনার কাজের জন্য বিশেষ সহায়ক তখন আপনি একটি নির্দিষ্ট উদাহরণ দিয়ে উত্তর দিতে পারবেন।

আপনি প্রতিদিন আপনার দৈনন্দিন কাজের তালিকা ভালো করে দেখুন। নিশ্চিত হোন আপনি কোন কাজটি কতটা ভালোভাবে শেষ করতে পেরেছেন।

খুঁজে বের করুন এই তালিকার কোন কাজটিতে আপনার কাজের পদ্ধতি ভালোভাবে প্রয়োগ করতে পেরেছিলেন।

যদি তা সম্ভব হয় তাহলে উপরোক্ত ৪টি কাজের পদ্ধতির সমন্বয় আপনি নিজের মধ্যে ঘটাতে পারবেন।

সম্ভবত কোনো একটি ধরনে আপনি বিশেষভাবে পারদর্শী। ইন্টারভিউতে প্রশ্নের উত্তরে কখনোই বলবেন না যে আপনি কঠোর পরিশ্রমী, বরং আপনি নিজের কাজের পদ্ধতি দিয়ে কোনো একটি কাজ খুব ভালোভাবে করার অভিজ্ঞতা উদাহরণ হিসেবে দিন।

৪. কাজের ধরনের জন্য যেসব বিষয় খেয়াল রাখতে হবে

যখন আপনি আপনার কাজের ধরন বিষয়ে নির্দিষ্ট একটা উদাহরণ দিচ্ছেন, আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে কিছু কিছু জিনিস আপনার কাজের ধরনকে নির্ধারিত করে ও প্রভাবিত করে। সেগুলি নিয়ে নিচে আলোচনা করা হলো।

দক্ষতা – নির্দিষ্ট সময়সীমার মধ্যে যথাযথভাবে কাজ শেষ করা।

ব্যবস্থাপনা – একটি নির্দিষ্ট গঠন পদ্ধতিতে প্রতিটি কর্মদিবসকে সাজানো।

দলগতভাবে কাজ – সহকর্মীদের সাথে যথাযথ সম্পর্কের মাধ্যমে কাজ করা।

সমালোচনা – গঠনমূলক সমালোচনা গ্রহণ করা এবং ভুল থেকে শেখা।

যোগাযোগ – কাজের জায়গায় অন্যান্যদের সাথে খোলামেলাভাবে যোগাযোগ করার ক্ষমতা।

মনে রাখতে হবে প্রশ্নের উত্তর স্পষ্ট ও বিচক্ষণতার সাথে দিতে হবে যাতে নিয়োগদাতা খুশি হন। উপরের এই ৫টি উপাদানের মধ্যে উপরের ৩টিকে আপনার কাজের ধরন বর্ণনা করতে ব্যবহার করুন।

৫. কাজের ধরনের ‘নমুনা’ তুলে ধরুন

যখন আপনি নিজের কাজের ধরন সম্পর্কে নির্দিষ্ট একটি কাজ ও দক্ষতা নিয়ে বলবেন, তখন আপনার কাজে আপনার কাজের ধরন বা স্টাইল কী প্রভাব ফেলে সেটা বলুন। উদাহরণ দিবেন এবং উদাহরণ যথাযথ এবং সংক্ষেপ রাখার চেষ্টা করবেন।

যেমন, যদি কাজের দক্ষতার ধরন  চিহ্নিত করে থাকেন তাহলে বলুন আপনি নির্দিষ্ট সময়ের আগেই আপনার কাজ সমাধা করতে সক্ষম।

যদি কাজের ধরন হিসেবে শেখার ব্যাপারটি বেছে নেন তাহলে বলুন আপনি আপনার ম্যানেজার বা বসের গঠনগত সমালোচনা গ্রহণ করতে পারেন এবং সেখান থেকে কী কী শিক্ষা নিয়েছেন এবং পরবর্তীতে পেশাগতভাবে তা আপনাকে সাহায্য করেছে।

আরো পড়ুন: কীভাবে কাউকে রাজি করাবেন? —‪ মনোযোগ আকর্ষণের ৭ বৈজ্ঞানিক পদ্ধতি

এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য নিজেকে অধ্যবসায়ের সাথে প্রস্তুত করুন যাতে আপনি নিজেই নিজের ভুলত্রুটি বিচার করতে পারেন এবং প্রশ্নকারী বা নিয়োগদাতাদের আপনার উত্তরের মাধ্যমে সন্তুষ্ট করতে পারেন।

নিজেই চিন্তা করুন, আপনাকে কি আগে কখনো আপনার কাজের ধরন সম্পর্কে প্রশ্নের উত্তর দিতে হয়েছে? আপনি কি এই প্রশ্নের উত্তর দেওয়ার জন্য যথেষ্ট প্রস্তুত ছিলেন? এই প্রশ্নটি আপনার ইন্টারভিউকে কীভাবে প্রভাবিত করেছিল?

এরপর প্রস্তুতি গ্রহণ করা শুরু করুন।

About Author

সাম্প্রতিক ডেস্ক
সাম্প্রতিক ডেস্ক