page contents
সমকালীন বিশ্ব, শিল্প-সংস্কৃতি ও লাইফস্টাইল
ব্লগ

পিকে (২০১৪)

১৯ ডিসেম্বর ২০১৪ মুক্তি পেয়েছে বছরের সবচেয়ে আলোচিত বলিউড  সিনেমা ‘পিকে’। ‘মুন্না ভাই এমবিবিএস’, ‘লাগে রাহো মুন্না ভাই’ এবং ‘থ্রি ইডিয়টস’ এর মত বলিউড কাঁপানো জনপ্রিয় সিনেমার পরিচালক রাজকুমার হিরানি। তাই ‘পিকে’ মুক্তির শুরু থেকেই এই সিনেমা ঘিরে কথাবার্তার কমতি নাই।

রাজকুমার হিরানি পরিচালিত, বিধু বিনোদ চোপড়া প্রযোজিত এবং বলিউড সুপারস্টার আমির খান অভিনীত ২০০৮ সালের ‘থ্রি ইডিয়টস’ সিনেমাকে বলা হয়েছিল এ যাবৎকালের সবচেয়ে সফল ভারতীয় ছবি। ‘পিকে’ সিনেমাতে এই তিন মহারথী আবার একসাথে হয়েছেন। তাই এই সিনেমাকে ঘিরে দর্শকের আগ্রহের শেষ নাই।

হিরানির সিনেমায় সমাজের বিভিন্ন অসঙ্গতি, গোঁড়ামি এবং ভ্রান্ত ধারণা নিয়ে হাস্য ও ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ থাকে। এইবারের সিনেমা ‘পিকে’তেও ধর্মব্যবসায়ী ‘গুরু’ ‘বাবা’দের নিয়ে ব্যঙ্গ-বিদ্রুপ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন পরিচালক।

সিনেমার গল্প কেমন হবে তা প্রকাশ করা না হলেও পরিচালক বলেছেন তার আগের সিনেমাগুলির মত হাস্যরস, আবেগ, অনুভূতি এবং রোমান্সে পরিপূর্ণ থাকবে ‘পিকে’।

ডিজনি ইন্ডিয়ার পরিবেশনায় ভারতের মধ্যেই ৪০০০সিনেমা হলে এবং ভারতের বাইরে ৮৪৪ সিনেমা হলে একসাথে মুক্তি পেতে যাচ্ছে ‘পিকে’।

ডিজনি ইন্ডিয়ার মতে ‘পিকে’ই একমাত্র ভারতীয় সিনেমা যেটি ভারতের বাইরে মুক্তির দিনেই সবচেয়ে বেশি প্রচারিত হতে যাচ্ছে। ইউরোপ আমেরিকায় প্রদর্শিত কোন ভারতীয় সিনেমা এর আগে এত বড় করে কখনো প্রচারিত হয় নাই। এই সিনেমা ১০টি বিদেশি ভাষায় অনূদিত হয়েছে।


পিকে ছবির অফিসিয়াল টিজার

ছবি মুক্তি পাওয়ার আগে এর পোস্টার ঘিরে বেশ সমালোচনা হয়েছিল। গত জুলাই মাসে ডিজনি ইন্ডিয়া অভিনেতা আমির খানের প্রায় নগ্ন একটি ছবি সম্বলিত পোস্টার বাজারে ছেড়েছিল। পোস্টারে আমির খানের এমন একটি ছবি ছিল যেখানে তিনি হাতে ধরা রেডিও দিয়ে ব্যক্তিগত গোপন অঞ্চল ঢেকে ড্যাবডেবে চোখে সামনের দিকে তাকিয়ে আছেন। এই পোস্টার নিয়ে অনেকে মনখারাপ সমালোচনা ইত্যাদি করলেও ভারতের সুপ্রিম কোর্ট তা মনে করে নি। এই পোস্টার নিয়ে বিভিন্ন মহল থেকে মামলা করা হলেও সুপ্রিম কোর্ট এ ব্যাপারে ছাড়পত্র দিয়েছিল।

পোস্টারের প্রসঙ্গে হিরানি বলেছেন, “এ ছবি এমন এক আর্ট, যার মধ্যে সিনেমার মূল মূল বিষয়গুলি উঠে এসেছে। আপনি পরিপাটি ধোপদুরস্থ হয়েও অশ্লীল হতে পারেন। আমি অনেককেই জিজ্ঞাসা করেছি, তুমি রেডিও ভেদ করে সে দিগম্বর কি দিগম্বর না সেটি কীভাবে বুঝলে? শিশু যখন জন্মগ্রহণ করে তখন তো সে নগ্নই থাকে—আমরা শ্লীলতার কথা তখনই ওঠাই যখন নগ্নতাকে ইস্যু করে তুলি।”

পিকের চিত্রনাট্য রচনায় পরিচালকের সাথে ছিলেন অভিজিৎ জোশি। অভিনেতা আমির খানের সাথে আরো অভিনয় করেছেন আনুশকা শর্মা, সুশান্ত সিং রাজপুত, বোমান ইরানি, সৌরভ শুক্লা এবং মুন্না ভাই খ্যাত সঞ্জয় দত্ত।

আনুশকা শর্মা সিনেমায় জগৎ জননী বা জাগ্গুর চরিত্রে অভিনয় করেন। জাগ্গু বেলজিয়ামে সাংবাদিকতা বিষয়ে পড়তে গিয়ে সারফারাজ নামের এক পাকিস্তানি ছেলের প্রেমে পড়ে। দিল্লীতে জাগ্গুর পরিবার জ্যোতিষী দিয়ে ভাগ্য পড়িয়ে দেখে যে জাগ্গু সারফারাজ দ্বারা প্রতারিত হবে। এ নিয়ে তাদের মধ্যে ভুল বোঝাবুঝির সৃষ্টি হয় এবং জগৎ জননী  দেশে ফিরে আসে।

আমির খান ভিনগ্রহের প্রাণীর ভূমিকায় অভিনয় করেন। এই প্রাণীটি রাজস্থানের একটা স্থানে অবতরণ করে। প্রাণীটির ভিনগ্রহে ফিরে যাওয়ার একমাত্র উপায় থাকে একটি লকেট যা স্থানীয় লোক চুরি করে নিয়ে যায়। সে শিশুতোষ প্রশ্ন দিয়ে সবাইকে বিব্রত করতে থাকে এবং লকেটটি খুঁজতে থাকে। লোকে বলে একমাত্র ভগবানই তাকে উদ্ধার করতে পারবে। তার কিম্ভূতকিমার পোশাক-পরিচ্ছদের জন্য লোকে তাকে ‘পিকে’ নাম দেয়।

পিকে দিল্লী মেট্রোতে “ভগবানকে পাওয়া গেলে পিকের সাথে যোগাযোগ করুন” লিখিত লিফলেট বিলাতে গিয়ে জগৎ জননীর দেখা পায়। এরপর শুরু হয় তাদের লকেট খোঁজার যাত্রা।

২০১১ সালে রাজকুমার হিরানি স্ক্রিপ্ট করার শুরুতে তার ছবির নাম রেখেছিলেন ‘তালি’। পরে ‘তালি’র বদলে নাম দেন ‘এক থা তালি’। সেসময় তিনি জানতে পারেন ‘এক থা টাইগার’ নামে একটি ছবি প্রোডাকশনে রয়েছে। ফাইনালি ‘পিকে’ নামটি গ্রহণ করা হয়।

ছবিতে আমির খান যেসব পোশাক পরেছেন তার প্রায় সবই লোকজনের কাছ থেকে সংগ্রহ করা।

পিকে ছবিটি সিক্যুয়াল তৈরির প্ল্যান আছে হিরানির। ১৫ কোটি রুপিতে বিক্রি হয়েছে এ ছবির মিউজিক স্বত্ব।

ক্রিকেট তারকা শচীন তেন্ডুলকার ছবি মুক্তির একদিন আগেই ছবিটি দেখেছেন।  তিনি আমির খানের অভিনয় দেখে বিস্মিত হয়ে সবাইকে এ ছবি দেখতে অনুরোধ করেছেন। শচীন এর আগে কখনো কোন ছবির জন্য এভাবে বলেন নাই।

সিনেমার সঙ্গীত পরিচালনা করেছেন অজয় অতুল, শান্তুনু মৈত্র এবং অঙ্কিত তিওয়ারি। সনু নিগাম, শ্রেয়া ঘোষাল, শান, অঙ্কিত তিওয়ারি এবং স্বরূপ খান কণ্ঠ দিয়েছেন বিভিন্ন গানে।

উল্লেখ্য, আমির খানের আগের ঘরের ছেলে জুনায়েদ খান এ ছবিতে সহকারী পরিচালক হিসাবে কাজ করেছেন।

বিনোদন

About Author

নাসিফ আমিন
নাসিফ আমিন

লেখক ও অনুবাদক