page contents
সমকালীন বিশ্ব, শিল্প-সংস্কৃতি ও লাইফস্টাইল
ব্লগ

২০১৪ সালে স্টেজে নাচছেন মাইকেল জ্যাকসন, হলোগ্রামের!

micheal-j-21

২০১৪ সালের বিলবোর্ড মিউজিক অ্যাওয়ার্ডে মাইকেল জ্যাকসনের পারফরমেন্স ছিল ছয় মাসের প্ল্যানিং, কোরিওগ্রাফি এবং ভিডিওর ফলাফল।

প্রযুক্তির কথা আর আলাদা করে উল্লেখ করার দরকার নেই। অনুষ্ঠানের প্রযোজকেরাও অনুষ্ঠানের মাত্র আটদিন আগে ভিডিওটি দেখেন।

বিলবোর্ড মিউজিক অ্যাওয়ার্ডের পরিচালক এবং প্রযোজক ল্যারি ক্লেইন বলেছেন, আমরা গত পাঁচ মাস ধরে এটা নিয়ে কথা বলছিলাম আর তখনো তারা নতুন নতুন প্রক্রিয়া আবিষ্কার করছিল। যা আসলে নাই তা নিয়ে কথা বলা সত্যি-ই আশ্চর্যজনক!

১৮ মে রবিবার মাইকেল জ্যাকসন বিলবোর্ড মিউজিক অ্যাওয়ার্ড ২০১৪ অনুষ্ঠানে ১৬ জন ড্যান্সার নিয়ে ‘স্লেভ টু দ্য রিদম’ গানের সাথে পারফর্ম করেছেন। এর আগে ২০১২ সালে প্রথমবারের মত প্রয়াত র‍্যাপ গায়ক টু-প্যাক শাকুরের হলোগ্রাম তৈরি করা হয়েছিল।

হলোগ্রাম জ্যাকসনের পরনে ছিল গোল্ড-জ্যাকেট, সাদা টি-শার্ট এবং ইটের মত লাল রঙের ট্রাউজার। ১৯৯১ সালে এল.এ রেইড এবং বেবিফেসের সাথে ‘ড্যাঞ্জারাস’ গানের রেকর্ডিং-এর সময় মাইকেল জ্যাকসন যে পোশাক পরেছিলেন সেটা পরেই তিনি এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

গত সপ্তাহে মাইকেল জ্যাকসনের নতুন অ্যালবাম এক্সেসকেপ মুক্তি পেয়েছে। বিলবোর্ড মিউজিক অ্যাওয়ার্ডের প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান ডিক ক্লার্ক প্রোডাকশনস বিশেষ একটি মঞ্চ তৈরি করেছিল যেটা শুধু জ্যাকসনের পারফরমেন্সের জন্যই ব্যবহৃত হয়েছে।

করিডোর দিয়ে ড্যান্সাররা প্রবেশ করলে জ্যাকসনকে সিংহাসন থেকে উঠে আসতে দেখা যায়। এরপর জ্যাকসন তাঁর নিজস্ব কিছু স্টেপ দেখান। তারমধ্যে মুনওয়াক ছিল। লেজার, আগুনের শিখা, প্রাচীন পোশাক পরিহিত ড্যান্সাররাও হলোগ্রাম-ফিল্মের অংশ ছিল।

ভিডিও: মাইকেল জ্যাকসনের হলোগ্রাম মিউজিক – স্লেভ টু দ্য রিদম

ক্লেইন বলেছেন এটা সরাসরি পারফরমেন্স দেখার মত অনুভূতি সৃষ্টি করে। তিনি বলেন, মাইকেল জ্যাকসন পারফরমেন্স করার সময় যেরকম দেখতেন, আপনি সেই জাদু দেখছিলেন।

গত বছরই পারফরমেন্সের জন্য ‘স্লেভ টু দ্য রিদম’ নির্ধারণ করা হয়। টালাউয়েগা ব্রাদার্স এবং জেমি কিং হলোগ্রামের কোরিওগ্রাফি এবং ভিডিও পরিচালনায় ছিলেন। আর এটি প্রযোজনা করেছে পালস এভ্যুলুশন এবং ট্রাইসাইকেল লজিক।

জ্যাকসনের আইনজীবী এবং উপদেষ্টা জন ব্রাঙ্কা বলেছেন, আমরা সবসময়ই সিদ্ধান্ত ভেবেছি ‘স্লেভ টু দ্য রিদম’ এমন একটা গান যেটাতে মানুষ নাচতে পারবে। একটি পটেনশিয়াল ক্লাব সং এটা। আমরা মাইকেল জ্যাকসন সার্কে দ্যু সোলেলি শো এর ডিরেক্টর জেমি কিং-এর সাথে কথা বলেছি এবং আমাদের সবারই গানটা পছন্দ হওয়ার মত মনে হয়েছে।

টালাউয়েগা ভ্রাতৃদ্বয় রিচ অ্যান্ড টোন নিউ ইয়ারের পর পরই জ্যাকসন এবং ফিল্মের অন্যান্য ড্যান্সারদের জন্য নাচের মুভগুলি আঁকতে শুরু করে। জ্যাকসনের সাথে তাদের সংশ্লিষ্টতা ১৯৯৫ সালের এমটিভি মিউজিক অ্যাওয়ার্ড থেকে। তারা ১৯৯৭ সালের মাইকেল জ্যাকসনের হিস্টোরি ট্যুরেরও কোরিওগ্রাফি করেছিল। সেই আমলে মাইকেল জ্যাকসনের চুলের স্টাইল এবং পোশাক থেকে এই পারফরমেন্সে মাইকেল জ্যাকসনের ইমেজ তৈরি করা হয়েছে।

রিচ টালাউয়েগা বলেন, আমরা জানতাম তাঁর ড্যান্স মুভের জন্য আমাদের বেশি দূরে যেতে হবে না–আমরা তাঁর পৃথিবীতেই এটাকে রেখেছি। তাঁর স্টেপ পুনরায় সাজালে একটু আলাদা দেখায়। আপনি একই ভাষায় কথা বলছেন, শুধু আলাদা একটা ডায়ালেক্ট।

টোন টালাউয়েগা হাইস্কুলে থাকা অবস্থায়ই জ্যাকসনের সাথে কাজ করা শুরু করেন। তিনি বলেন, তারা শিল্পীর মুভগুলি নিয়ে গবেষণা করেছে এবং সামান্য কিছু অ্যাডজাস্ট করেছে, একটি হাতের কোণা, তাঁর মাথার ক্যাপ। পারফরমেন্সে ক্লাসিক মাইকেলই ছিল, আমরা শুধু নিজেদের মসলা যোগ করেছি। প্রথমে সরাসরি দর্শকদের সামনে পারফর্ম করার কথা না থাকলেও শেষে ব্রাঙ্কা এবং আয়োজকরা মনে করেন সরাসরি দর্শকদের পারফরমেন্স দেখানোর প্রয়োজন আছে।

ব্রাঙ্কা বলেন, মাইকেল জ্যাকসনকে সরাসরি দেখা খুবই গুরুত্বপূর্ণ। এটা এমন কিছু যে, শেষে আমরা চাইছিলাম সরাসরি দর্শকদের সামনে পারফরমেন্স এবং একটি অ্যাওয়ার্ড শো ছাড়া তার থেকে আর ভালো কিছু নেই।

তবে মাইকেল জ্যাকসনের হলোগ্রামে কী ধরনের প্রযুক্তি ব্যবহার করা হয়েছে তা জানান নি আয়োজকরা। জ্যাকসন এস্টেটের মুখপাত্র ডায়না ব্যারন বলেন, এটা সম্পূর্ণ নতুন ধরনের প্রযুক্তি যেটার সম্পর্কে বিস্তারিত বলব না আমরা। মাইকেল কখনো তাঁর ম্যাজিকের ভিতরের ব্যাপার উন্মোচন করেন নি। ব্যারন আরো বলেন, মাইকেল সবসময় এই ধরনের কিছু করতে চাইত। মাইকেল জ্যাকসনের ভক্তদের মধ্যেও বিলবোর্ড মিউজিক অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠান নিয়ে ছিল ব্যাপক আগ্রহ। গত ১৩ বছরে এবারই সবচেয়ে বেশি সংখ্যক দর্শক টিভিতে এই শো দেখেছে। টিভিতে ১০.৫ মিলিয়ন দর্শক এবারে বিলবোর্ড মিউজিক অ্যাওয়ার্ড শো উপভোগ করেছে।

অনেক দর্শক মাইকেল জ্যাকসনের হলোগ্রাম পারফরমেন্সের সময় কেঁদে ফেলেন। মাইকেল জ্যাকসনের ভক্তদের মধ্যে এই হলোগ্রাম পারফরমেন্স নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। একজন ভক্ত মন্তব্য করেছেন, মাইকেল জ্যাকসনের হলোগ্রামটি ভয়ঙ্কর এবং অসুস্থ। আরেক ভক্ত তাঁর প্রতিক্রিয়ায় জানিয়েছেন, আমি নিশ্চিত না আমি হলোগ্রাম নিয়ে কেমন বোধ করছি। অনেকেই প্রশ্ন তুলেছেন এটা কি কিং অব পপের যোগ্য সম্মান ছিল? অথবা এটা কি তাঁর স্মৃতিতে আঘাত করে না?

About Author

সাম্প্রতিক ডেস্ক
সাম্প্রতিক ডেস্ক