page contents
সমকালীন বিশ্ব, শিল্প-সংস্কৃতি ও লাইফস্টাইল
লাইফস্টাইল

minds.com—সোশ্যাল মিডিয়া জগতে ফেসবুকের নতুন প্রতিদ্বন্দ্বী

ফেসবুক এবং অন্যান্য সামাজিক মাধ্যমগুলির চেয়ে আরো বেশি স্বচ্ছতা, নিরাপত্তা আরো বেশি প্রাইভেসির নিশ্চয়তা নিয়ে নতুন একটি সামাজিক মাধ্যম এসেছে। এটির নেটওয়ার্ক সাপোর্ট দিচ্ছে হ্যাকটিভিস্ট বা হ্যাকিং এর মাধ্যমে একটিভিজম চালানো গ্রুপ অ্যানোনিমাস।

এটি সব মেসেজকে এনক্রিপ্ট করার মাধ্যমে সরকার ও বিজ্ঞাপনদাতাদের থেকে গোপন রাখবে। এর নাম মাইন্ডস ডটকম—minds.com।

ফরচুন ম্যাগাজিনে প্রশ্ন: আপনার চেহারার মালিক কে? তারা বলছে: দুর্বল আইনের কারণে ক্ষমতা ফেসবুকের।

ফরচুন ম্যাগাজিনে প্রশ্ন: আপনার চেহারার মালিক কে? তারা বলছে: দুর্বল আইনের কারণে ক্ষমতা ফেসবুকের।

প্রথমে দেখাতেই মনে হয় এটি অন্যান্য সামাজিক মাধ্যমগুলির মতই। এটি একজন ব্যক্তির ফলোয়ারদের সাম্প্রতিক আপডেট দিবে, তার বন্ধুদেরকে কমেন্ট করার সুযোগ দিবে এবং কোনো পোস্টকে প্রমোট করা যাবে।

কিন্তু অন্যান্য সামাজিক মাধ্যমগুলির সাথে এর পার্থক্য থাকছে এর আড়ালে। মাইন্ডস ডটকম ডাটা সংগ্রহ করার মাধ্যমে প্রফিট অর্জন করে না—বরং এর বিপরীত কাজটি করে থাকে। এটি সব মেসেজকে এনক্রিপ্ট করবে ফলে সরকার বা বিজ্ঞাপনদাতারা মেসেজগুলি আর দেখতে পাবে না। পোস্টের জন্য ব্যবহারকারীদের জন্য পুরস্কারের ব্যবস্থাও থাকছে এই সামাজিক মাধ্যমটিতে। ভোট দেওয়া, কমেন্ট করা বা আপলোড করার মাধ্যমে সেটি নির্ধারিত হবে।

face an

এটির নেটওয়ার্ক সাপোর্ট দিচ্ছে হ্যাকটিভিস্ট বা হ্যাকিং এর মাধ্যমে একটিভিজম চালানো গ্রুপ অ্যানোনিমাস।

পুরস্কার দেওয়া হবে পয়েন্টের মাধ্যমে, এটি নির্ধারিত হবে পোস্টের ‘ভিউজ’ বা কতজন আপনার পোস্ট দেখল তা দিয়ে। সরলভাবে বিষয়টি এরকম, আপনি যত একটিভ থাকবেন আপনার পোস্ট তত প্রমোট করবে এই সোশ্যাল মিডিয়া।

মাইন্ডস ডটকম ওয়েবসাইটে বলা আছে, প্রতিটি মোবাইল ভোট, কমেন্ট, রিমাইন্ড এবং আপলোডের জন্য আপনি পয়েন্ট পাবেন, সেই পয়েন্ট আপনার ইচ্ছা অনুযায়ী আপনার পোস্টের ‘ভিউজ’ এর সাথে বিনিময় করতে পারবেন। এটি একটি নতুন ওয়েব দৃষ্টান্ত যা সবাইকে একটি ভয়েস দেয়।

একটি স্বচ্ছ বা ট্রান্সপারেন্ট অ্যালগরিদম ব্যবহার করে কন্টেন্ট বুস্ট করা যাবে। এই ব্যাপারটি একদম ফেসবুকের বিপরীত, ফেসবুকে কন্টেন্ট কীভাবে বুস্ট করা হয় তা এক রহস্য। তাছাড়া মাইন্ডস ডটকম সম্পূর্ণ ওপেন সোর্স, যে কেউ এই সোশ্যাল নেটওয়ার্কটিকে ডিজাইন ও আপডেট করাতে অবদান রাখতে পারবে।

মাইন্ডস ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা বিল অটম্যান (Bill Ottman) বলেছেন, আমাদের অবস্থান হলো ব্যবহারকারী বা ইউজাররাই সার্বিকভাবে সোশ্যাল মিডিয়াকে নিয়ন্ত্রণ করবে। মাইন্ডস ডটকমের কোড ওপেন সোর্স থাকায় যে কোনো প্রোগ্রামারই চেক করতে পারবে কেউ কোনো ডাটাতে প্রবেশাধিকার বা একসেস পাচ্ছে কিনা। অটম্যানের মতে এটিই এই সামাজিক মাধ্যমটিকে দাঁড়া করাবে।

minds 1

হ্যাকার, ডিজাইনার, ক্রিয়েটর এবং প্রোগ্রামারদের জন্য আহ্বান: চলুন মাইন্ডস ডটকমকে একটি টপ সাইট বানাতে অবদান রাখি।

অটম্যান বলেন, অনেক কোম্পানি প্রাইভেসি দাবি করবে এবং বলবে তারা এনক্রিপ্টেড। কিন্তু এটা আসল এনক্রিপশন না কারণ, আমরা কোনোভাবেই কোড দেখতে পারি না, ফলে সেখানে কোনো ব্যাকডোর আছে কিনা আমরা জানি না।

এই বিজনেস মডেলটি হ্যাকটিভিস্ট গ্রুপ অ্যানোনিমাসকে আকর্ষণ করেছে। অ্যানোনিমাস এখন প্রোগ্রামার ও ডিজাইনারদের সোশ্যাল নেটওয়ার্কটি ডেভেলপ করার জন্য ডাকছে।

অ্যানোনিমাস আর্ট অব রেভ্যুলুশান তাদের ফেসবুক পেজে পোস্ট করেছে: অ্যানোনিমাস হ্যাকার, ডিজাইনার, ক্রিয়েটর এবং প্রোগ্রামারদের সারা দুনিয়া জুড়ে এক হওয়ার জন্য ডাকছে। চলুন মাইন্ডস ডটকমকে একটি টপ সাইট বানাতে অবদান রাখি, যে সাইটটি আসলেই সাধারণ মানুষের, সাধারণ মানুষদের দ্বারা পরিচালিত এবং সাধারণ মানুষদের জন্য।

bill ottman

মাইন্ডস ডটকমের প্রতিষ্ঠাতা বিল অটম্যান

ডেস্কটপ কম্পিউটারের ও মোবাইলের অ্যাপস দিয়ে ১৫ জুন, ২০১৫ তে সাইটটি শুরু হয়েছে। অফিসিয়াল ঘোষণার আগেই ব্যবহারকারীদের মাঝে এর আকর্ষণ বাড়ছে।

অটম্যান বলেছেন, আনুষ্ঠানিকভাবে শুরু হওয়ার আগেই সাইটটির ভিজিটর ৬০ মিলিয়ন ছাড়িয়েছে। এর অনেক ব্যবহারকারীই ‘বিকল্প মিডিয়া’, অনলাইন স্বাধীনতা এবং নাগরিক সাংবাদিকতার প্রতি প্রতি আগ্রহী।

মাইন্ডস ডটকমে অ্যাকাউন্ট খোলার জন্যে নিচের বাটনে ক্লিক করুন:
minds_2

About Author

সাম্প্রতিক ডেস্ক
সাম্প্রতিক ডেস্ক