এই পদক্ষেপটি বিশেষ করে উয়েফা’র দীর্ঘদিনের প্রতিষ্ঠিত ‘চ্যাম্পিয়ন্স লীগ’ আসরের জনপ্রিয়তার জন্যে হুমকি হয়ে দাঁড়াতে পারে।

গত রবিবার ইউরোপের শীর্ষ ১২টি ফুটবল ক্লাব মিলে একটি সুপার লিগ চালু করার ঘোষণা দিয়েছে। এর ফলে ইউরোপের অন্যান্য লীগ যারা নিয়ন্ত্রণ করেন, তাদের সঙ্গে এসব ক্লাবের তিক্ততা তৈরি হবে। কারণ, প্রচলিত লীগের খেলা থেকে যা আয় হয়, তার পরিমাণ কমে যাওয়ার আশঙ্কা তৈরি হয়েছে এতে করে।

এই পদক্ষেপটি বিশেষ করে উয়েফা’র দীর্ঘদিনের প্রতিষ্ঠিত ‘চ্যাম্পিয়ন্স লীগ’ আসরের জনপ্রিয়তার জন্যে হুমকি হয়ে দাঁড়াতে পারে। তাই ফুটবল খেলার বিভিন্ন আসর বা প্রতিযোগিতা যারা নিয়ন্ত্রণ করেন, তাদের পাশাপাশি অনেক রাজনৈতিক নেতারাও নতুন এই লীগ গঠনের নিন্দা জানিয়েছেন।

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, রিয়াল মাদ্রিদ এবং জুভেন্টাস হলো নতুন গঠিত এই লীগের শীর্ষ ৩ সদস্য।

এদিকে উয়েফা দেশীয় এবং আন্তর্জাতিক বিভিন্ন ফুটবল আসর থেকে নতুন লীগে যোগ দেয়া দলগুলিকে বহিষ্কার করার হুমকি দিয়েছে। একই সঙ্গে লীগ গঠনের এই পদক্ষেপের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের প্রতিশ্রুতিও ব্যক্ত করেছে।