কাশ্মীরের সাবেক মুখ্যমন্ত্রী মেহবুবা মুফতিকে মুক্তি দিয়েছে ভারত। গত বছরে নয়াদিল্লী সরকারের পক্ষ থেকে বিতর্কিত অঞ্চল কাশ্মীরকে কেন্দ্রশাসিত রাজ্য হিসেবে ঘোষণা দেয়া হয়। তারই ধারাবাহিকতায় ১৪ মাস আগে ২০১৯ সালের আগস্ট মাসে কাশ্মীর জুড়ে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়ে। সেই সময়ে আরো অনেকের সাথেই গ্রেফতার হন স্থানীয় রাজনৈতিক সংগঠন পিপলস ডেমোক্র্যাটিক পার্টির নেতা মেহবুবা মুফতি।

মেহবুবা সহ অন্যদেরকে পাবলিক সেফটি অ্যাক্টের অধীনে গ্রেফতার করা হয়েছিল। এই আইন অনুসারে, কোনো ধরনের অভিযোগ কিংবা বিচার ছাড়াই যেকোনো ব্যক্তিকে সর্বোচ্চ দুই বছর পর্যন্ত কারাগারে রাখা যাবে।

মুক্তির একদিন পরে মেহবুবা মুফতির বাসস্থানে জম্মু কাশ্মীরের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ফারুক আবদুল্লাহ ও ওমর আবদুল্লাহ।

মেহবুবা মুফতিকে মুক্তি দেয়া হলেও তার সাথে গ্রেফতার হওয়া প্রায় ৮,০০০ মানুষ এখনো কারাগারে বন্দি রয়েছেন। মুক্তি পাওয়ার পরে মেহবুবা তার টুইটার অ্যাকাউন্টে একটি অডিও বিবৃতি প্রকাশ করেছেন। সেখানে তিনি কাশ্মীরের রাজনৈতিক অধিকার পুনরুদ্ধার এবং রাজনৈতিক বিরোধের চূড়ান্ত মীমাংসার দাবি জানান। এছাড়াও সেই অডিওবার্তায় কাশ্মীর ইস্যুতে আন্দোলন চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণাও দিয়েছেন তিনি।