Subscribe Now
Trending News

Blog Post

দাঁতের এনামেল পুনর্গঠন করে এমন লজেন্সের ওপর ট্রায়াল শুরু
সায়েন্স

দাঁতের এনামেল পুনর্গঠন করে এমন লজেন্সের ওপর ট্রায়াল শুরু 

দাঁতে এনামেলের নতুন স্তর তৈরির জন্য এ লজেন্সটি ফসফরাস এবং ক্যালসিয়াম আয়ন সহ জেনেটিক্যালি ইঞ্জিনিয়ারড পেপটাইড ব্যবহার করে।

খুব অল্প সময়ের মধ্যেই দাঁতের এনামেল পুনর্গঠন করে এবং দাঁতকে আরো ঝকঝকে করে তোলে এরকম ব্রিথ মিন্ট কিনতে পাওয়া যাবে। ইউনিভারসিটি অফ ওয়াশিংটনের গবেষক দলের জন্য এমনটা সম্ভব হয়েছে।

এ দলটি একটি লজেন্সের ক্লিনিকাল ট্রায়াল চালু করার প্রস্তুতি নিচ্ছে। লজেন্সটির মধ্যে রয়েছে জেনেটিক্যালি ইঞ্জিনিয়ারড পেপটাইড (বা অ্যামিনো অ্যাসিডের চেইন) , আরও রয়েছে ফসফরাস এবং ক্যালসিয়াম আয়ন, এগুলি দাঁতের এনামেলের মৌলিক উপাদান।

দাঁতের ক্রাউন অর্থাৎ মাড়ি থেকে বহির্গত দাঁতের দৃশ্যমান যে অংশ এবং এ অংশের বাইরের যে আচ্ছাদন অর্থাৎ দাঁতের এনামেল গঠনের জন্য মূল যে প্রোটিন সেটি হলো অ্যামেলোজেনিন। পেপটাইড উৎপন্ন হয় এই অ্যামেলোজেনিন থেকে। এবং এটি আরও গঠন করে সিমেন্টাম, যা দাঁতের মূলের পৃষ্ঠ তৈরি করে।

প্রতিটি লজেন্স পেপটাইডের মাধ্যমে দাঁতের উপর বেশ কয়েক মাইক্রোমিটার পর্যন্ত নতুন এনামেলের আস্তরণ তৈরি করে। পেপটাইডটি এমনভাবেই তৈরি করা হয়েছে যাতে এটা মুখের নরম টিস্যুকে কোনো প্রকার ক্ষতি না করে ক্ষতিগ্রস্ত এনামেলকে মেরামত করতে পারে। এবং নতুন সৃষ্টি হওয়া এ স্তরটি দাঁতের উপরি অংশেই শুধুমাত্র নয়, দাঁতের পৃষ্ঠের নিচে জীবন্ত টিস্যু অর্থাৎ ডেন্টিন পর্যন্ত বিস্তৃত।

দিনে দুটি লজেন্স এনামেল পুনর্গঠন করতে পারে, আর দিনে একটি লজেন্স সুস্থ স্তর বজায় রাখতে পারে। লজেন্সগুলি মিন্টের মতো করে গ্রহণ করা যাবে এবং প্রাপ্তবয়স্ক ও শিশুদের ব্যবহারের জন্য এগুলি সমান রকম নিরাপদ বলে আশা করা হচ্ছে।

গবেষকরা সম্ভাব্য কর্পোরেট পার্টনারদের সাথে এর ব্যবসায়িক আবেদন নিয়ে আলোচনা করছেন বলে জানান এ গবেষনার টিম লিডার অধ্যাপক মেহমেত সারিকায়া। তিনি ডিপার্টমেন্ট অফ ম্যাটেরিয়ালস রিসার্চ সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং-এর একজন অধ্যাপক এবং ডিপার্টমেন্ট অফ ওরাল হেলথ সাইন্স-এর একজন সহায়ক অধ্যাপক। এছাড়া এ গবেষণায় একটি গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা পালন করছেন স্কুল অব ডেন্টিস্ট্রি-এর ডিপার্টমেন্ট অফ রিস্টোরেটিভ ডেন্টিস্ট্রি অনুষদের ড. সামি ডোগান।

যদিও ফ্লোরাইড দাঁতের এনামেলকে শক্তিশালী করতে পারে, তবে তা সক্রিয়ভাবে দাঁতের পুনর্গঠন করে না। এটি তুলনামূলকভাবে দ্রুত দ্রবিভূত হয় এবং এর সামগ্রিক কার্যকারিতা নির্ভর করে মূলত নিরলস ওরাল হাইজিন-এর উপর। একই সময়ে, এ লজেন্স ফ্লোরাইডের সাথেও ব্যবহার করা যেতে পারে, ড. ডোগান বলেন। এ বিষয়ে ড. ডোগান আরো বলেন, ফ্লোরাইড-এর পরিমান থাকতে হবে খুব অল্প, বেশিরভাগ ফ্লোরাইড-টুথপেস্টে যা পাওয়া যায় তার প্রায় ২০ শতাংশ।

এ লজেন্স দ্বারা যে নতুন এনামেল তৈরি হয় তা দাঁত-ঝকঝকে করার স্ট্রিপ বা জেল-এর থেকে দাঁতকে বেশি সাদা করে। এর আরেকটি স্বতন্ত্র উপকারিতা রয়েছে: দাঁত সাদা করার প্রচলিত চিকিৎসা-পদ্ধতি নির্ভর করে হাইড্রোজেন পারক্সাইডের উপর, এটি একটি ব্লিচিং এজেন্ট এবং দীর্ঘদিন ব্যবহারের করলে এটা দাঁতের এনামেলকে দুর্বল করে ফেলতে পারে।

যেহেতু দাঁতের এনামেল একবার নষ্ট হয়ে গেলে স্বতস্ফূর্তভাবে পুনরায় গ্রো করতে পারে না, তাই দাঁতের পৃষ্ঠের ডেন্টিন অংশটি উন্মুক্ত হয়ে যেতে পারে। এর ফলে দেখা দিতে পারে দাঁতের হাইপার-সেন্সিটিভিটি (শিরশির করা), ক্যাভিটি, এমনকি গাম ডিজিজ। অন্যদিকে, এ লজেন্স দাঁতকে শক্তিশালী করে, পুনর্গঠন করে এবং রক্ষা করে।

“এ ক্লিনিকাল ট্রায়ালটিতে আমাদের তিনটি অবজেক্টিভ আছে,” অধ্যাপক সারিকায়া বলেন। “প্রথমত, এর ফলপ্রসূতা হাতে-কলমে দেখানো। দ্বিতীয়ত, ডকুমেন্টেশন। তৃতীয়ত, বেঞ্চমার্কিং–দাত ঝকঝকে করার এ পদ্ধতির ইফেক্ট ও বিদ্যমান কমার্শিয়াল ট্রিটমেন্টের মধ্যে মিল-অমিল তুলনা করে দেখা। গবেষকরা ইতিমধ্যে লজেন্সটি মানুষ, শূকর এবং ইঁদুর থেকে তোলা দাঁতের উপর পরীক্ষা করেছেন। তারা সরাসরি ইঁদুরের ওপরেও পরীক্ষাটি করেছেন।

ডেনিজ ইউসেসয়

এ দলটি ডেন্টাল অফিসে ব্যবহারের জন্য সংশ্লিষ্ট পণ্য তৈরির পরিকল্পনাও করেছে, ড. ডোগান বলেন। তিনি এই পর্যায়ের ট্রায়ালগুলি মার্চ বা এপ্রিল মাসে শুরু হবে বলে আশা করছেন। তিনি বলেন, “প্রতিটি গবেষণায় দুই সপ্তাহ সময় লাগবে এবং আমরা আশা করি এই ট্রায়ালগুলি তিন মাসের বেশি সময় নেবে না।” দলটি ওভার-দ্য-কাউন্টার ব্যবহারের জন্য একটি টুথপেস্টও তৈরি করছে, কিন্তু এর সূচনার সময়সূচি চূড়ান্ত করেনি।

এছাড়াও, গবেষকরা হাইপারসেন্সিটিভ দাঁতের চিকিৎসার জন্য ইঞ্জিনিয়ার্ড-পেপটাইড এর মাধ্যমে তৈরি একটি জেল বা সমাধান অনুসন্ধান করছেন। দাঁতের হাইপারসেন্সিটিভিটি এনামেলের দুর্বলতার কারণে ঘটে যা দাঁতের ডেন্টিন এবং স্নায়ুগুলিকে গরম বা ঠাণ্ডার প্রতি আরো ভালনারাবল করে তোলে। বর্তমানে বাজারে প্রচলিত বেশিরভাগ পণ্য দাঁতে অর্গানিক ম্যাটেরিয়ালের একটি স্তর তৈরি করে এবং পটাসিয়াম নাইট্রেট এর মাধ্যমে নার্ভ অবশ করে রাখে, কিন্তু এর ফলে যে স্বস্তি আসে তা সাময়িক। অথচ পেপটাইড এ সমস্যার উৎস সমাধানের মাধ্যমে অর্থাৎ এনামেলকে শক্তিশালী করার মাধ্যমে স্থায়ীভাবে সমস্যাটির সমাধান করে।

এ লজেন্সের ডিজাইনের ধারণাটি এসেছে ডেনিজ ইউসেসয়-এর থেকে। ডেনিজ ইউডব্লিউ-এর জেনেটিক্যালি ইঞ্জিনিয়ার্ড ম্যাটেরিয়ালস সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং সেন্টারের একজন গ্রাজুয়েট। যিনি প্রাথমিক পর্যায়ে এ প্রকল্পটিকে সাপোর্ট করার জন্য ইউডব্লিউ-এর কমার্শিয়ালাইজেশন সেন্টার ‘কোমোশন’ এর মাধ্যমে এক লক্ষ্য ($100,000) অ্যামাজন ক্যাটালিস্ট অনুদান পেয়েছিলেন। আরো কিছু বিশেষ কন্ট্রিবিউশন এসেছে ডিপার্টমেন্ট অফ ম্যাটেরিয়ালস সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং এর গবেষণা বিজ্ঞানী হ্যানসন ফং থেকে।

সূত্র. স্কুল অব ডেন্টিস্ট্রি, ইউনিভার্সিটি অব ওয়াশিংটন, ১ মার্চ ২০২১

Related posts

সাম্প্রতিক © ২০২১ । সম্পাদক. ব্রাত্য রাইসু । ৮১১ পোস্ট অফিস রোড, বাড্ডা, ঢাকা ১২১২