রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা বেশি থাকলে করোনারি আর্টারি ডিজিজের ঝুঁকি বেশি থাকে এবং এর ফলে হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোক হতে পারে।

২৪ আগস্ট, ২০১৫ তে প্রকাশিত একটি গবেষণায় দেখা গেছে দিল্লীর ১৯ বছরের কম বয়সী শতকরা ২৩ ভাগ তরুণ-তরুণীর কোলেস্টেরলের মাত্রা খুব বেশি। এই গবেষণাটি পরিচালনা করেছেন অ্যাপোলো হসপিটালের কার্ডিওলজিস্ট এবং লিপিড অ্যাসোসিয়েশন অব ইন্ডিয়ার চেয়ারম্যান রমন পুরি।

দিল্লী এবং এর আশেপাশের এলাকার ২৫০৮ জন টিনএজারের মধ্যে পরীক্ষা চালানো হয়, এবং দেখা গেছে মেয়েদের অবস্থা আরো বেশি ঝুঁকিপূর্ণ।

রমন পুরি বলেন, দিল্লী এবং এর আশেপাশের এলাকার তরুণ-তরুণীদের মধ্যে অ্যাথারোজেনিক লিপিড প্রোফাইলের মাত্রা বেশি (হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোকের কারণ), এইচডিএল (প্রয়োজনীয় কোলেস্টেরল) এর মাত্রা কম এবং অতিরিক্ত বডি ম্যাস ইনডেক্স (উচ্চতার তুলনায় ওজন) দেখা গেছে।

পুরি আরো বলেন, রক্তে কোলেস্টেরলের মাত্রা বেশি থাকলে করোনারি আর্টারি ডিজিজের ঝুঁকি বেশি থাকে এবং এর ফলে হার্ট অ্যাটাক এবং স্ট্রোক হতে পারে।

ইন্ডিয়ার স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের প্রকাশিত তথ্য অনুসারে, করোনারি আর্টারি ডিজিজ ইন্ডিয়াতে সাধারণত গড়ে ৫২ বছর বয়সীদের হয়ে থাকে, আর আমেরিকাতে গড়ে ৭০ বছর বয়সীদের। গবেষণায় আরো বলা হয়েছে এই টিনএজারদের শতকরা ২.৩ ভাগের অতিরিক্ত ওজন এবং শতকরা ৩.৮ ভাগ অবেসিটিতে আক্রান্ত। আমেরিকান কলেজ অব কার্ডিওলজিতে এই গবেষণাটি প্রকাশিত হয়েছে।