শ্বাসকষ্টের সময় ইনহেলার ছাড়া কোথাও আটকা পড়লে যা করবেন

অ্যাজমার চিকিৎসা সম্বন্ধে সিঙ্গাপুর জেনারেল হাসপাতালের সিনিয়র কনসালটেন্ট লু চিয়ান মিন কিছু পরামর্শ দিয়েছেন। তার মতে, অবস্থার উন্নতি হলেও শ্বাসকষ্টের রোগীদের কখনোই চিকিৎসা বন্ধ করা উচিৎ না।

শ্বাসকষ্টের রোগীদের নিয়মিত চিকিৎসা নেয়া দরকার। পাশাপাশি রোগের জন্য তাদের স্বাস্থ্যগত ব্যাপারেও যত্নবান হওয়া দরকার। কখনোই শ্বাসকষ্টের সমস্যা অবহেলা করা উচিৎ না। যেহেতু রোগীদের জীবন নির্ভর করে এর উপর।

আপনি যদি অ্যাজমার রোগী হন, তাহলে আপনার কাছে সবসময় ইনহেলার থাকাটাই স্বাভাবিক। তবে কখনো কখনো এমন পরিস্থিতিতেও আপনি পড়তে পারেন, যখন আপনার আশেপাশে কোথাও ইনহেলারের ব্যবস্থা হচ্ছে না। এদিকে আপনার ব্যক্তিগত ইনহেলারও নিজের কাছে নেই।

এই অবস্থায় পড়লে কিছু পরামর্শ আপনার কাজে লাগতে পারে। জেনে নিন, ইনহেলার না থাকলে শ্বাসকষ্ট কমাতে যেই ৬টি উপায় আপনি অবলম্বন করতে পারেন:

১. সোজা হয়ে বসুন

কাজকর্ম যা করছিলেন, তা বাদ দিয়ে কিছুক্ষণের জন্য সোজা হয়ে বসে থাকুন। শুয়ে পড়লে কিংবা ঝুঁকে থাকলে আপনার শ্বাসকষ্ট বাড়তে পারে। মেরুদণ্ড সোজা অবস্থায় থাকলেই আপনার দেহের পক্ষে শ্বাসকার্য চালানো সহজ হয়।

২. গভীর আর লম্বা শ্বাস নিন

শ্বাসকষ্ট শুরু হলে আপনার শ্বাসপ্রশ্বাসের গতি বেড়ে যায়। তাতে আপনার ফুসফুস হাইপারভেন্টিলেশনের অবস্থায় চলে যায়। এই অবস্থা এড়াতে স্থির হওয়ার চেষ্টা করুন আর লম্বা লম্বা শ্বাস নিন। তাতে করে আপনার শ্বাস প্রশ্বাসের গতি কমতে থাকবে। শ্বাস নেয়ার সময় মুখ খোলা রাখবেন না। নাক দিয়ে শ্বাস নিন আর মুখ দিয়ে ছাড়ুন।

৩. শান্ত থাকুন

দুশ্চিন্তা আর তাড়াহুড়া না করে শান্ত থাকার চেষ্টা করুন। তাতে করে আপনার বুকের পেশির সংকুচিত অবস্থা ঠিক হতে থাকবে। আর আপনার শ্বাসপ্রশ্বাসও স্বাভাবিক হওয়া শুরু করবে।

৪. কারণ থেকে দূরে থাকুন

ধুলাবালি অথবা সিগারেটের ধোঁয়া আপনার শ্বাসকষ্ট শুরু হওয়ার কারণ হতে পারে। অ্যামোনিয়া অথবা ক্লোরিনের মতো অনেক কেমিকেলের গন্ধও আপনাকে শ্বাসকষ্টে ফেলে দিতে পারে। শ্বাসকষ্ট উঠলে এমন পরিবেশ থেকে দ্রুত বেরিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করুন। খোলামেলা আর পরিষ্কার বাতাস সমৃদ্ধ জায়গায় যান।

৫. ক্যাফেইন সমৃদ্ধ গরম বেভারেজ পান করুন

কফির মতো গরম আর ক্যাফেইন সমৃদ্ধ পানীয় শ্বাসকষ্টের সময় আপনাকে সাহায্য করতে পারে। এই ধরনের ড্রিংকস আপনার দেহের বায়ুনালী খানিকটা প্রসারিত করে। এভাবে এক থেকে দুই ঘন্টার মতো সময় আপনি উপশম পেতে পারেন।

৬. জরুরিভিত্তিতে চিকিৎসা গ্রহণ করুন

শ্বাসকষ্টের সাথে কাশি কিংবা বুকে ব্যথার মতো লক্ষণ দেখা দিলে সম্পূর্ণ বিশ্রাম নিন। কিছুক্ষনের মধ্যে তা না কমলে জরুরিভিত্তিতে মেডিকেল সাহায্য নিন। অথবা আপনার চিকিৎসকের সাথে দ্রুত যোগাযোগ করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here