“আমি এখানে এক হাজার ডলারও খরচ করতে চাই না।”

সাম্প্রতিক মহাকাশ অভিযান নিয়ে সমালোচনা করেছেন বিল গেটস। ‘দি নিউ ইয়র্ক টাইমস’ এর একটি পডকাস্ট অনুষ্ঠানে মহাকাশ অভিযান নিয়ে নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করেন তিনি। সেখানে বাণিজ্য দুনিয়ার অন্যান্য শিল্পপতিদের মতো তিনি কেন এই ব্যাপারে আগ্রহী নন, তা নিয়ে আলোচনা করেছেন।

বিল গেটস জানান, আমাদের গ্রহের মধ্যে থাকা বিভিন্ন সমস্যা সমাধানের লক্ষ্যে কাজ করে যেতেই তিনি বেশি আগ্রহী। তার মতে, পৃথিবীর এসব সমস্যা রকেট দিয়ে সমাধান করা সম্ভব না। নিজের অবস্থান স্পষ্ট করতে গিয়ে তিনি বলেন, “আমি এখানে (মহাকাশে অভিযান পরিচালনার ক্ষেত্রে যে প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে) এক হাজার ডলারও খরচ করতে চাই না। কারণ আমার সংস্থা এই টাকা দিয়ে হামের টিকা দেয়ার মাধ্যমে মানুষের জীবন বাঁচাতে পারে।”

অনুষ্ঠানের এক পর্যায়ে তিনি বলেন, “আমি মঙ্গলগ্রহের কোনো বাসিন্দা না।”

কয়েক দিন আগেই বিল গেটসের বই “How to Avoid a Climate Disaster” প্রকাশিত হয়েছে। সেই সূত্র ধরেই তিনি জানান, এই গ্রহের জলবায়ু পরিবর্তনের মতো গুরুত্বপূর্ণ বিষয়গুলির দিকেই আমাদের মনোযোগ দেয়া উচিৎ।

এদিকে বর্তমান পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী মানুষদের আরেকজন এলন মাস্ক মহাকাশে অভিযান পরিচালনা এবং বৈদ্যুতিক গাড়ি নির্মাণে বৈপ্লবিক সব পরিবর্তন আনছেন। অনুষ্ঠানে তার ব্যাপারে বিল গেটস বলেন, জলবায়ুর বিপর্যয় ঠেকাতে এলন মাস্ক অসাধারণ কাজ করছেন। তার এসব অবদানকে খাটো করে দেখা উচিৎ না। তবে বড় ধরনের পরিবর্তন আনতে হলে বড় বড় শিল্পের সঙ্গেও কাজ করতে হবে।

বিল গেটস জানান, গাড়ি এবং বিদ্যুৎ ব্যবহারের সমস্যা জলবায়ু বিপর্যয়ের ক্ষেত্রে অনেক বড় ভূমিকা রাখছে। তবে জলবায়ু পরিবর্তনে আরও অনেক শিল্পও দায়ী। স্টিল, সিমেন্ট এবং রেড মিট বা লাল মাংসের উৎপাদন ব্যবস্থার তুলনায় গাড়ির জ্বালানী সমস্যা আমাদের জলবায়ুর তিন ভাগের একভাগ ক্ষতি করছে। অর্থাৎ, জলবায়ুর বিপর্যয় ঠেকাতে এসব শিল্প নিয়েও কাজ করার তাগিদ দেন বিল গেটস।